কাদের মির্জার বিরুদ্ধে মামলার আবেদন, প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ১২:৩০ এএম, ২২ জানুয়ারি ২০২১

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জার বিরুদ্ধে আদালতে মানহানি মামলার আবেদন করেছেন যুবলীগের এক নেতা। এর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার রূপালী চত্বরে এক সংবাদ সম্মেলন করেন মেয়র নিজে। এর আগে বিকেলে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশও হয়।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে নোয়াখালীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ২ নম্বর আমলি আদালতে সদর উপজেলার অশ্বদিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি সদস্য মো. রিয়াজ উদ্দিন মানহানির ওই মামলার আবেদন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে মির্জা কাদের তার বিরুদ্ধে মামলার আবেদনের জন্য নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন জেহানসহ জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের দায়ী করেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘মামলার বাদী যাকে করা হয়েছে সে নিজে একাধিক অস্ত্র, মাদক ও নারী কেলেঙ্কারির মামলার আসামি।’

কাদের মির্জা বলেন, তাকে মামলার ভয় দেখিয়ে কোনো লাভ নেই, প্রায় অর্ধশত বছরের রাজনৈতিক জীবনে ১৮টিরও বেশি মামলায় জেল খেটেছেন তিনি।

jagonews24.com

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত এই মেয়র বলেন, ‘একরাম সাহেব, জেহান সাহেব, রাজনীতি এখনো বোঝেন না শেখেননি। টাকা পয়সা আছে তো অনেক বানিয়েছেন। মানুষের থেকে লুট করে। যাদের নাম কখনো শুনিনি। জেহান সাহেব উপজেলা চেয়ারম্যান হয়েছেন, কোথায় পেয়েছেন এত টাকা?’

তিনি বলেন, ‘আমাদের মামলার ভয় দেখাবেন না, মওদুদ সাহেবের ১৮টা মামলা, ফেস করিনি? প্রথম মামলা ছাত্রশিবিরের অফিস ভাঙার মামলা, তখনও এখানকার নেতারা জড়িত ছিল। এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে আন্দোলনরত অবস্থায় রাজপথ থেকে গ্রেফতার হয়েছি। আমাদের মামলার ভয় দেখান? জেলের ভয় দেখান? লাভ হবে না। হিতে বিপরীত হবে।’

এ সময় তিনি মানহানি মামলার আবেদনকারীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘সে কে? সে হলো মাদক, নারী কেলেঙ্কারি মামলার আসামি। ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ ইয়াবাসহ গ্রেফতার হয়েছে। তারপরও নারী নিয়ে ব্যবসা করার সময় বেগমগঞ্জে ধরা পড়েছে। এই কুলাঙ্গারের কথা লজ্জা হয় বলতে। অশ্বদিয়া থেকে, নোয়াখালী থেকে জানিয়েছে-এই ছেলে রাতে আমার বোনদের এইসব নেতাদের হাতে তুলে দেয়।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন- কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান, সাধারণ সম্পাদক নুরনবী চৌধুরী, বসুরহাট পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজম পাশা চৌধুরী রুমেলসহ অনেকে।

মিজানুর রহমান/এমআরআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]