এবারও মাঠে ‘ভোটপাগল’ তারেক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফেনী
প্রকাশিত: ০৬:৪৮ পিএম, ২৬ জানুয়ারি ২০২১

তারেকুল ইসলাম। সংসদ নির্বাচন থেকে শুরু করে প্রায় সব ক’টি নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে আলোচনায় ফেনীর এ যুবক। গ্রামের বাড়ি জেলার পরশুরাম উপজেলায় হলেও ছোটকাল থেকে ফেনী শহরের বারাহীপুরে বসবাস করেন।

একেক নির্বাচনে একেক দলের হয়ে প্রার্থী হয়ে নির্বাচনের মাঠে উপস্থিত হন তিনি। প্রচার-প্রচারণায় লোকজনের উপস্থিতি কম থাকলেও আয়োজনের কমতি থাকে তারেকের। ‘ভোটপাগল’ নামে বেশ আলোচিত তারেকুল ইসলাম।

feni1

এবার ফেনী পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন তারেক। নির্বাচন নয়, এবার আলোচনায় এসেছেন প্রচারণায় হিরো আলমকে এনে। সোমবার (২৫ জানুয়ারি) দিনভর হিরো আলমকে নিয়ে ফেনী পৌরসভার আনাচে-কানাচে চষে বেরিয়েছেন তিনি। বিষয়টি ‘টপ অব দ্য টাউনে’ পরিণত হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৪ সালে ফেনী সদর উপজেলা নির্বাচনে প্রথমবারের মতো অংশ নেন তারেক। সেবার কল্যাণ পার্টি থেকে (জাহাজ প্রতীক) ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেছিলেন। এরপর থেকে সব নির্বাচনেই প্রার্থী হয়ে মাঠে সক্রিয় ছিলেন ‘ভোটপাগল’ এ মানুষটি।

feni1

এরপর ২০১৬ সাল। এবার ফেনী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মনোননয়নপত্র সংগ্রহ করেন। যদিও ওই নির্বাচনে সরকারদলীয়দের হুমকি-ধামকিতে মনোনয়নপত্র জমা দেননি।

পৌরসভা ও উপজেলা নির্বাচনের পর এমপি হওয়ার খায়েশ জাগে তারেকের। ২০১৮ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফেনী-১ আসন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তারেকুল ইসলাম। তার দল জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (এনডিএম)। হারিকেন প্রতীক নিয়ে ছাগলনাইয়-ফুলগাজী ও পরশুরাম উপজেলা প্রত্যন্ত অঞ্চলে চষে বেড়ান।

jagonews24

কোনো নির্বাচনে তারেকুল ইসলামের ভোট দুই অঙ্ক স্পর্শ করতে পারেনি। এতে হতাশ নন তিনি। আক্ষেপ একটাই, কোনো নির্বাচনে নিজের ভোট নিজে দিতে পারেননি তারেকুল ইসলাম। কেন্দ্রে গিয়ে দেখেন তার ভোট অন্য কেউ দিয়েছেন।

৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য ফেনী পৌরসভা নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) মনোনীত মেয়র প্রার্থী হয়ে (সিংহ প্রতীক) নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন তারেকুল ইসলাম। এবার তার প্রচারণায় কেউ বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছেন না। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী (নৌকা), বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আলাল উদ্দিন আলাল (ধানের শীষ) প্রতীকে নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন।

feni1

তারেকুল ইসলাম তারেক মূলত ব্যবসায়ী। সামাজিক-সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সাথেও জড়িত তিনি। শহরের মেজর সালাহ উদ্দিন স্কুলে লেখাপড়া করলেও তারেক এসএসসি ও এইচএসসি পাস করেছেন উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে।

এ বিষয়ে তারেকুল ইসলাম তারেক জানান, নির্বাচন ঘিরে ভোটের হারানো সংস্কৃতি ফিরিয়ে আনতে প্রার্থী হই। নতুন প্রজন্মকে জানতে হবে এদেশে একদিন গণতন্ত্র ছিল, ভোটের রাজনীতি ছিল। ভোট যাই পাই ভোটাররা আমাকে পছন্দ করেন বলে জানান তিনি।

feni1

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও ফেনী পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার নাসির উদ্দিন পাটোয়ারী জানান, প্রার্থীরা শান্তিপূর্ণভাবে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের অপ্রীতিকার ঘটনা ঘটেনি।

প্রসঙ্গত, এবার ফেনী পৌরসভায় পাঁচজন মেয়র, ৮ ওয়ার্ডে ২২ কাউন্সিলর ও একটি ব্লকে দুজন নারী কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। বাকিরা এর আগে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হন। এখানে ৯১ হাজার ৬৬২ জন ভোটার রয়েছেন। এদের মধ্যে ৪৭ হাজার ৩০৭ জন পুরুষ ও ৪৪ হাজার ৩৫৫ জন নারী ভোটার।

আরএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]