করোনার টিকা প্রদানে চলছে প্রস্তুতি, দেয়া হচ্ছে প্রশিক্ষণ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০৫:১২ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২১

ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় করোনাভাইরাসের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হতে যাচ্ছে। এই টিকাদান কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে প্রস্তুতি নিচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। টিকা প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক ও টিকাদানকর্মীদের প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সিভিল সার্জন মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ এই তথ্য জানিয়েছেন।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকেই ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল ও ঘাটুরায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নমুনা সংগ্রহ করে করোনাভাইরাস শনাক্তকরণের কাজ শুরু হয়। পাশাপাশি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে অ্যান্টিজেনের মাধ্যমে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হচ্ছে।

এ পর্যন্ত এই মহামারিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৮০০ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন দুই হাজার ৬৭৩ জন। আর মারা গেছেন ৪৫ জন।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র আরও জানায়, কয়েকদিনের মধ্যেই জেলায় ১২ হাজার ডোজ টিকা এসে পৌঁছাবে। এই টাকাগুলো জেলা পর্যায়ে বিশেষ কোল্ড রুম, উপজেলা পর্যায়ে আইএলআর ও শিশুদের টিকা প্রদানের কোল্ড কেইসে সংরক্ষণ করা হবে। টিকা প্রদান করতে জেলা সদরে আটটি ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে দুইটি করে টিম গঠন করা হয়েছে। প্রতিটি টিমে দুইজন করে টিকাদানকর্মী ও চারজন করে স্বেচ্ছাসেবক কাজ করবেন।

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন মোহম্মদ একরাম উল্লাহ বলেন, ‘করোনার টিকা প্রদান ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কবে শুরু হবে, তা এখনই বলা যাচ্ছে না। বিভিন্ন গণমাধ্যমে জেনেছি, জেলা পর্যায়ে ফেব্রুয়ারির ৭ তারিখ থেকে টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হবে। আমরা ইতোমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছি। প্রথম পর্যায়ে ফ্রন্টলাইনারদের টিকা দেয়া হবে। তাদের তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘যারা টিকা নেবেন তাদের অনলাইনে নিবন্ধন করতে হবে। www.surokkha.gov.bd লিংকে ঢুকে নিবন্ধন সম্পন করতে হবে। নিবন্ধন সম্পন্ন করার পর টিকাগ্রহীতার মোবাইলে ক্ষুদেবার্তার মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে, তিনি কবে-কোথায় টিকা গ্রহণ করবেন।’

এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]