কোম্পানীগঞ্জ আ.লীগের অফিস ছাড়লেন কাদের মির্জা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৬:৩৬ পিএম, ০১ মার্চ ২০২১
ফাইল ছবি

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের অফিস ছেড়েছেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

সোমবার (১ মার্চ) দুপুরে বসুরহাট রূপালী চত্বরে অবস্থিত উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসের সব মালামাল তিনি পার্শ্ববর্তী একটি ভবনে ব্যক্তিগত অফিসে নিয়ে গেছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের অফিস ছেড়ে দেয়া প্রসঙ্গে আবদুল কাদের মির্জা (তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য) বলেন, ‘ওই অফিসটি ঘরের মালিকদের বুঝিয়ে দিয়েছি। আজ (সোমবার) থেকে আমি বসুরহাট রূপালী চত্বরে আলেয়া টাওয়ারে ব্যক্তিগত অফিসে বসব। তাই আমার কেনা মালামালগুলো নিয়ে এসেছি।’

jagonews24

ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘অপরাজনীতির সঙ্গে আমি নাই। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের অফিস কোথায় হবে তা একমাত্র ওবায়দুল কাদের জানেন।’

এর আগে গত শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) পৌর মিলনায়তনে এক সভায় কাদের মির্জা বলেছিলেন, ‘দল যদি বহিষ্কার করে বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদ’ করেছি, সেখানে বঙ্গবন্ধুর জয়গান, শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও জনগণের অধিকার আদায়ের জন্য কথা বলব।’

jagonews24

অফিস ছেড়ে দিয়ে মালামাল নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরনবী চৌধুরী কিছুই জানেন না বলে জানান। তিনি বলেন, ‘এসব মালামাল পদ্মা লাইফ ইন্স্যুরেন্স থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের নামে ক্রয় করা। উনি (কাদের মির্জা) আওয়ামী লীগের মালামাল ব্যক্তিগতভাবে নিয়ে যেতে পারেন না।’

প্রসঙ্গত, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা দীর্ঘ দুই মাস থেকে দলের বিভিন্ন ব্যক্তির সমালোচনা করে আলোচনায় আসেন। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি কাদের মির্জা ও তার প্রতিপক্ষ গ্রুপের সংঘর্ষে এক সাংবাদিক খুন হওয়ার পর কেন্দ্র থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সব কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। এরপর থেকে দলের নেতাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার গুঞ্জন শোনা যায়।

এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]