বিয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়ে মারধর, অপমানে আত্মহত্যা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বরগুনা
প্রকাশিত: ১০:৪৩ এএম, ০৬ মার্চ ২০২১
ফাইল ছবি

বরগুনার তালতলী উপজেলায় মতি হাওলাদার (২৫) নামের এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। শুক্রবার (৫ মার্চ) সন্ধ্যা ৭টায় উপজেলার নিশানবাড়ীয়া ইউনিয়নের তেতুলবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মতি হাওলাদার তেতুলবাড়িয়া গ্রামের মৃত মজিদ হাওলাদারের ছেলে।

মতির চাচা মাহতাব হাওলাদার জানান, তেতুলবাড়িয়া গ্রামের হারুন শিকদারের মেয়ের (১৯) সঙ্গে একই গ্রামের মতি হাওলাদারের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কয়েকদিন আগে মতি ওই মেয়ের বাড়িতে বিয়ের প্রস্তাব পাঠায়। কিন্ত মেয়ের বাবা বিয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন।

পরে শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টায় মেয়ের বাড়ির সামনে মতিকে ঘুরাঘুরি করতে দেখার পর মেয়ের বাবা-মা ও ভাইদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় ও একপর্যায়ে তারা তাকে মারধর করে।

এরপর সেইদিনই সন্ধ্যা ৭টায় ওই এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা শহিদ খান নদীর পাড়ে মাছ ধরতে গেলে একটি গাছের সঙ্গে মতির লাশ ঝুলতে দেখে স্থানীয়দের জানায়। খবর দিলে রাত সাড়ে ৮টায় দিকে তালতলী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে।

এ ঘটনার পর থেকেই মেয়ের বাবা হারুন শিকদার পরিবারসহ পলাতক রয়েছেন।

নিহত মতির চাচা মাহতাবের দাবি, হারুন শিকদার ও তার ছেলেদের মারধরের অপমানে মতি আত্মহত্যা করেছে। তিনি এ ঘটনার বিচার দাবি করেন।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান মিয়া জানান, মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ আসেনি।

এসএমএম/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]