৯ বছর ঘুরেও জীবিত হতে পারেননি আওয়াল

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নেত্রকোনা
প্রকাশিত: ০৯:১৮ পিএম, ১৬ এপ্রিল ২০২১

নিজেকে জীবিত প্রমাণ করতে গত ৯ বছর ধরে সরকারি দফতরে ধর্ণা দিচ্ছেন আব্দুল আওয়াল (৩১)। আওয়াল মদন পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে। তিনি মদন উপজেলার করোনা বিষয়ক কমিটির সমন্বয়ক।

২০১২ সালে ভোটার তালিকা হালনাগাদে আব্দুল আওয়ালকে মৃত উল্লেখ করা হয়। এ কারণে চাকরির আবেদনের পাশাপাশি সরকারি সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত আব্দুল আওয়াল। এমনকি জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্য করোনার টিকা পর্যন্ত দিতে পারেননি।

আওয়াল বলেন, নিজেকে জীবিত প্রমাণ করতে গত ৯ বছর ধরে উপজেলার নির্বাচন অফিসে ঘুরছি। নির্বাচন অফিসাররা আশ্বাস দিলেও এখনও জীবিত হতে পারলাম না। আমি জানি না কবে জীবিত হতে পারব। ২০১৪ সালে পৌরসভার মেয়রের কাছ থেকে আমি যে জীবিত আছি এ বিষয়ে একটি প্রত্যয়ন নিয়ে কোনোভাবে সাধারণ কাজ কর্ম করছি।

তিনি বলেন, সরকারি আবেদনসহ কোনো ধরনের আবেদন করতে পারছি না। সরকারি চাকরির বয়স শেষ হয়ে গেছে। আমার বাড়িটি খারিজ করা একান্ত প্রয়োজন। কিন্তু কিছুই করতে পারছি না। আমি আজ সমাজে জীবিত থাকলেও কাগজে মৃত আছি।

আওয়াল আরও বলেন, কেন আমাকে ভোটার তালিকায় কর্তন করা হলো বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. হামিদ ইকবাল বলেন, ২০১২ সালে ভোটার তালিকা হালনাগাদের সময় তথ্য সংগ্রহকারীরা আওয়ালকে হয়তো মৃত উল্লেখ করেছেন। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। আমি নতুন যোগদান করেছি। বিষয়টি নিয়ে হেড অফিসে কথা বলব।

এইচ এম কামাল/এএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]