অবশেষে ৯ বছর পর জীবিত হলেন সেই আওয়াল

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নেত্রকোনা
প্রকাশিত: ০৭:৩৯ পিএম, ২১ এপ্রিল ২০২১

অবশেষে নয় বছর পর জীবিত হলেন ভোটার তালিকায় মৃত নেত্রকোনার মদন উপজেলার সাংবাদিক আব্দুল আওয়াল। বুধবার (২১ এপ্রিল) উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. হামিদ ইকবাল তার ভোটার আইডি কার্ডটি সংশোধনের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জাগোনিউজে ‘৯ বছর ঘুরেও জীবিত হতে পারেনি আওয়াল’- এই শিরোনামে ১৬ এপ্রিল সংবাদ প্রকাশের পর ভাইরাল হয়। পরে নির্বাচন অফিস ভোটার আইডি নম্বরটি সংশোধন করে জটিলতা অবসান করে।

আওয়াল মদন পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে। তিনি ঢাকা থেকে প্রকাশিত একটি পত্রিকার প্রতিনিধি ও মদন উপজেলার করোনা বিষয়ক কমিটির সমন্বয়ক।

আব্দুল আওয়াল বলেন, জানা ২০১২ সালে ভোটার তালিকা হালনাগাদের সময় আব্দুল আওয়ালকে মৃত উল্লেখ করা হয়। এ কারণে চাকরির আবেদনের পাশাপাশি সরকারি সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হন আব্দুল আওয়াল। এমনকি জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্য করোনার টিকা পর্যন্ত দিতে পারেননি তিনি।

তিনি আরও বলেন, বুধবার উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে আমার জাতীয় পরিচয়পত্রের নিবন্ধন কাগজটি সংগ্রহ করেছি। এখন থেকে আর আমি যে মৃত বোঝা আর বহন করতে হবে না। কাগজটি পেয়ে আমি খুবই খুশি। তবে আমাকে যারা ভোটার থেকে কর্তন করেছে তাদের তদন্ত করে সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

আওয়ালের ভাই হোসাইন আহমেদ পরাগ বলেন, আমরা আজ খুব খুশি। অবশেষে আমার ভাই আজ মৃত থেকে জীবিত হওয়ার আইডি নম্বরটি পেল।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. হামিদ ইকবাল বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। সাংবাদিক আবদুল আওয়ালের ভোটার আইডি জটিলতা সমাধান করতে পেরে ভালো লাগছে।

এইচ এম কামাল/আরএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]