ফেনী থেকে ২৬২৬ টন ধান সংগ্রহ করবে খাদ্য বিভাগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফেনী
প্রকাশিত: ০৯:৪৪ পিএম, ০৯ মে ২০২১ | আপডেট: ০৯:৪৮ পিএম, ০৯ মে ২০২১

অভ্যন্তরীণ বোরো ধান সংগ্রহ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ফেনীর ছয় উপজেলা থেকে এবার দুই হাজার ৬২৬ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহ করবে খাদ্য বিভাগ।

রোববার (৯ মে) বিকালে জেলা খাদ্যগুদামের সামনে ধান সংগ্রহ কার্যক্রম উদ্বোধনকালে ফেনী জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামান এ তথ্য জানান।

এ সময় জেলা প্রশাসক বলেন, ধান সংগ্রহকালে কোনোভাবে কৃষকরা হয়রানি হলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। শতভাগ স্বচ্ছতার সঙ্গে ধান সংগ্রহ কার্যক্রমকে ফলপ্রসূ করার আহ্বান জানান তিনি।

এসময় ফেনী সদর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সহিদ উদ্দিন মাহমুদ জানান, ফেনীতে এবার দুই হাজার ৬২৬ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় ৭৬৯ মেট্রিক টন, ছাগলনাইয়ায় ৪৯২ মেট্রিক টন, দাগনভূঞায় ৫৬৯ মেট্রিক টন, পরশুরামে ২৭৮ মেট্রিক টন, ফুলগাজীতে ৪১১ মেট্রিক টন ও সোনাগাজী থেকে ১০৭ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহ করা হবে।

ফেনী সদর উপজেলা খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাহীন মিয়া জানান, একজন কৃষক প্রতি কেজি ধান ২৭ টাকা হারে সর্বোচ্চ তিন টন পর্যন্ত গুদামে দিতে পারবেন। আগামী ১৬ আগস্ট পর্যন্ত এ সংগ্রহ কার্যক্রম চলবে।

খাদ্যগুদামে ধান দিতে আসা কবির আহাম্মদ জানান, তিনি ফেনী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ড বারাহীপুর থেকে ৪৭ মণ ধান নিয়ে এসেছেন। ধানের প্রয়োজনীয় গুণাগুণ ঠিক থাকায় মেপেই তাকে চেক দিয়ে দেয়া হয়েছে। এ চেকের টাকা তুলে কিছু দেনা পরিশোধ করে বাকি টাকা দিয়ে ঈদের বাজার করবেন।

শর্শদী ইউনিয়ন থেকে আসা কৃষক তোফায়েল আহম্মেদ জানান, তিনি ১০ মণ ধান দিয়েছেন। সব কর্মকর্তা আন্তরিকতার সঙ্গে ধানগুলো গুদামজাত করেছেন। গুদামে ধান দিলে কোনো ঝামেলা নেই। তাই তিনি গ্রামে গিয়ে অন্যান্য কৃষককেও সরকারি গুদামে ধান দেয়ার পরামর্শ দেবেন।

আরএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]