মেঘনায় বাল্কহেড ডুবে নিখোঁজ ২ শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চাঁদপুর
প্রকাশিত: ০৪:৩৯ পিএম, ১০ জুন ২০২১

চাঁদপুর মতলব উত্তর উপজেলার দশানী বাজার সংলগ্ন মেঘনা নদীতে বালুবোঝাই একটি বাল্কহেড ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ ২ শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে৷

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) দুপুর ৩টায় বাল্কহেডটির ইঞ্জিনরুম থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে ডুবুরি দল।

নিহতরা হলেন, বরগুনার তালতলীর পশ্চিম জাড়াখালী গ্রামের মো. সালাম সিকদারের ছেলে সাজু সিকদার ও মো. জাহাঙ্গীরের ছেলে মো. মিজান।

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জের পাগলার উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে গত বুধবার (৯ জুন) সন্ধ্যায় মতলব উত্তর উপজেলার দশানী রাজনের দোকান বরাবর মেঘনা নদীতে নোঙর করে বাল্কহেডটি।

এরপর বৃহস্পতিবার রাত ২টায় হঠাৎ করে বাল্কহেডটি পানিতে ডুবে যায়। এসময় বাল্কহেডের ভেতরে দুই শ্রমিক ঘুমিয়ে ছিলেন। আর ছাদে দুইজন ঘুমিয়ে ছিলেন। ডুবে যাওয়ার সময় ছাদের দুইজন পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়ে সাতরে তীরে আসেন।

বেঁচে যাওয়া দুজন হলেন, বরগুনার তালতলীর পশ্চিম জাড়াখালী গ্রামের মো. জাহাঙ্গীরের ছেলে মো. নাইম সিকদার ও একই গ্রামের সুলতান হাওলাদারের ছেলে মো. মহিউদ্দিন হাওলাদার৷

পরে বাল্কহেড ও নিখোঁজ দুই শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধারের জন্য উদ্ধার অভিযান চালায় নৌ পুলিশ, কোস্টগার্ড ও বিআইডব্লিউটিএ’র ডুবুরি দল। অভিযান চলাকালে দুপুর ৩টায় বাল্কহেডের স্থান নির্ধারণ করা সম্ভব হয়। এরপর এর ভেতরের ইঞ্জিনরুম থেকে ওই দুই শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড চাঁদপুর স্টেশনের কমান্ডার লে. এম আসাদুজ্জামান নিখোঁজ দুই শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। বাল্কহেডটি উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সি অ্যান্ড পি বিভাগের সহকারী পরিচালক মাসুদ বরাত দিয়ে বিআইডব্লিউটিএ’র চাঁদপুর নদী বন্দরের উপ-পরিচালক কায়সারুল ইসলাম বলেন, ‘মূল চ্যানেল থেকে ডুবন্ত বাল্কহেডের পর্যাপ্ত দূরত্ব থাকায় নৌযান চলাচলে কোনো সমস্যা হবে না।’

নজরুল ইসলাম আতিক/এসএমএম/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]