৯৯৯-এ কল পেয়ে সাবেক স্বামীর মারধরে আহত নারীকে উদ্ধার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৪:৩০ এএম, ২২ জুন ২০২১ | আপডেট: ০৯:৩৮ এএম, ২২ জুন ২০২১

নোয়াখালী সুবর্ণচরে এক নারীকে (২২) নির্যাতন করেন তার সাবেক স্বামী জহিরুল ইসলাম (৩৫)। জরুরি সেবা ৯৯৯-এ কল দিয়ে পুলিশকে অভিযোগ করেন তিনি। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্তকে আটক করে।

সোমবার (২১ জুন) রাতে চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়াউল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওসি বলেন, উপজেলার চরজুবিলী ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম চরজব্বর গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের মেয়ে শারমিনকে রোববার (২০ জুন) রাতে পারিবারিক বিরোধের জেরে সাবেক স্বামী জহিরুল মারধর করেন। ৯৯৯ থেকে কল পাওয়ার পর আহতকে উদ্ধার ও অভিযুক্তকে আটক করা হয়।

ওসি জিয়াউল হক আরও জানান, এ ব্যাপারে আহতের বাবা দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে অভিযুক্ত জহিরুল ইসলাম ও তার দ্বিতীয় স্ত্রী পারুল আক্তারকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় জহিরুলকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। মঙ্গলবার (২২ জুন) তাকে আদালতে হাজির করা হবে।

আহত নারীর ভাই সাজ্জাদ হোসেন জাগো নিউজকে জানান, জহিরুলের সঙ্গে তার বোনের ২০১৪ সালে বিয়ে হ। তাদের ঘরে ফারিয়া ইসলাম (৬) ও সাইদুল ইসলাম (৪) নামে দু’টি সন্তান রয়েছে। মেয়ের সুখের কথা ভেবে তার বাবা জামাইর নামে বাড়ি পাশে জমিও লিখে দেন। ওই জমিতে বাড়িও করেন জহিরুল। কিন্তু যৌতুক চাওয়া নিয়ে জহিরুলের সঙ্গে চার মাস আগে তার বোনের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, গ্রাম্য সালিশে দুই সন্তানকে জহিরের কাছে দেয়া হয়। কিছুদিন আগে জহির দ্বিতীয় বিয়ে করার পর ওই নারী প্রায় সময় তার ভাগ্নে-ভাগ্নিকে মারধর করে। বাড়ির পাশে বাড়ি হওয়ায় মারধরের বিষয়টি সবাই দেখে। গত রোববার রাতেও ছেলে সাইদুলকে মারধর করার সময় শারমিন গিয়ে বাধা দিলে তার সাবেক স্বামী জহিরুল এসে শারমিনকে ভারি লাইট দিয়ে পিটিয়ে মাথায় জখম করে। পরে ৯৯৯-এ কল দিলে পুলিশ এসে উদ্ধার করে।

ইকবাল হোসেন মজনু/এএএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]