গোপালগঞ্জের সিঙ্গাড়া ফেরিওয়ালা মজনু এবার চেয়ারম্যান প্রার্থী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গোপালগঞ্জ
প্রকাশিত: ০২:১১ পিএম, ২২ জুন ২০২১ | আপডেট: ০৫:১৫ পিএম, ২২ জুন ২০২১

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার ১ নম্বর কুশলী ইউনিয়নের আসন্ন নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হতে প্রচারণা চালাচ্ছেন সিঙ্গাড়া বিক্রেতা মো. মজনু মোল্লা (৫৫)। বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কথা হ্যান্ডমাইক দিয়ে গানের সুরে গেয়ে প্রচার করে বাইসাইকেল চালিয়ে তিনি সিঙ্গাড়া বিক্রি করেন।

সরকারের দেয়া সুযোগ সুবিধা তিনি গরিব ও সাধারণ জনগণের হাতে তুলে দেয়ার জন্যই প্রার্থী হয়েছেন বলে জাগো নিউজকে জানান।

মজনু মোল্লা ১৯৯২ সাল থেকে টুঙ্গিপাড়ার পথে পথে ফেরি করে সিঙ্গাড়া বিক্রি করছেন। তিনি তিন পুত্র ও এক কন্যাসন্তানের জনক। নবম শ্রেণিতে পড়ার সময় অর্থাভাবে তার লেখাপড়া বন্ধ হয়ে যায়। এরপর থেকেই বঙ্গবন্ধুর হত্যার করুণ কাহিনি গানের মধ্যে দিয়ে তুলে ধরে সিঙ্গাড়া বিক্রি করছেন।

এ বিষয়ে কুশলী গ্রামের আমিনুল ইসলাম বলেন, তিনি দুবার ইউপি নির্বাচনে সদস্য পদে নির্বাচন করেছেন। সম্ভবত ১ ভোট করে পেয়েছিলেন। চেয়ারম্যান প্রার্থী হলে তিনি তেমন ভোট পাবেন না।

jagonews24

নিলফা বাজারের মিজানুর রহমান বলেন, ‘ভোট তো অনেককেই দিলাম, কি লাভ হলো? বর্তমান চেয়ারম্যান সাহেবের তো ঢাকায় বাসা। সারা বছর সেখানেই থাকেন। জনগণের খোঁজ নেন না। এবার না হয় এই গরিব মজনু ভাইকেই ভোট দিলাম। তিনি গরিব মানুষ, দেখা যাক কী করেন।’

এ বিষয়ে মজনু মোল্লা বলেন, ‘আমি গরিব মানুষ। সারা জীবনে অনেক না খেয়ে থেকেছি। আমি চেয়ারম্যান হলে গরিবের মাল বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌঁছে দেব। কোনো লুটপাট দুর্নীতি করবো না। চেয়ারম্যানের কাজ করার পাশাপাশি আমি সিঙ্গাড়া বিক্রি করে যাব।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মুজিবভক্ত মানুষ। জাতির পিতার আদর্শ বাস্তবায়ন ও সোনার বাংলা গড়তে আমি কাজ করব।’

মেহেদী হাসান/এমএইচআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]