প্রবাসীর অর্ধকোটি টাকা আত্মসাৎ, কারাগারে স্ত্রী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পটুয়াখালী
প্রকাশিত: ০৮:০০ পিএম, ২২ জুলাই ২০২১
ফাইল ছবি

পটুয়াখালীর বাউফলে প্রবাসী স্বামীর পাঠানো অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কার আত্মসাতের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় মোসা. শাহরিয়া আক্তার (২৬) নামের এক নারীকে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

বুধবার (২১ জুলাই) রাতে উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়নের বাবা বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার কালিশুরি ইউনিয়নের আবদুল কাদের মৃধার ছেলে মো. আবদুল করিম মৃধার সঙ্গে পাশের কেশবপুর ইউনিয়নের মো. মোসারেফ মৃধার মেয়ে মোসা. শাহরিয়া আক্তারের বিয়ে হয়। দীর্ঘ সময় স্বামী দেশে না থাকার সুযোগে শাহরিয়া আক্তার খালাতো ভাই নাহিদ খার (৪০) সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। তিনি স্বামীর পাঠানো প্রায় ৩৬ লাখ টাকা, ১০ লাখ টাকা মূল্যের স্বর্ণালঙ্কার ও বাড়ি ভাড়ার ছয় লাখ টাকা আত্মসাৎ করেন।

এদিকে স্ত্রীর কথাবার্তায় সন্দেহ হলে সৌদি থেকে দেশে ফিরে আসেন প্রবাসী করিম মৃধা। স্বামীর আসার খবর পেয়ে দুই সন্তান রেখে বাবার বাড়িতে চলে যান শাহরিয়া। এনিয়ে একাধিকবার সালিশ বৈঠক হলে আত্মসাৎকৃত টাকা নাহিদের কাছ থেকে উত্তোলন করে দিবেন বলে জানান। কিন্তু যথাসময় টাকা না দিলে শাহরিয়া আক্তার ও নাহিদকে আসামি করে মামলা করেন আবদুল করিম মৃধা। মামলায় শাহরিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ বিষয়ে মো. করিম মৃধা বলেন, ‘সৌদিতে আমি একটা কোম্পানিতে চাকরি করতাম। আমার উপার্জনের সব টাকা শাহরিয়ার একাউন্টে পাঠানো হয়েছে। যার ব্যাংক বিবরণী আমার কাছে রয়েছে। এছাড়াও তিনি স্বর্ণালঙ্কার ও বাড়ি ভাড়ার টাকা আত্মসাৎ করেন।’

বাউফল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আল মামুন বলেন, ‘ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি শাহরিয়া আক্তারকে গ্রেফতারের পর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।’

আরএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]