কুমিল্লায় ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি দোকান মালিক সমিতির

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুমিল্লা
প্রকাশিত: ০৭:৪৪ পিএম, ০১ আগস্ট ২০২১

ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়াসহ চার দাবিতে কুমিল্লায় সংবাদ সম্মেলন করেছে দোকান মালিক সমিতি।

রোববার (১ আগস্ট) দুপুরে নগরীর ফাইন টাওয়ারে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

এ সময় লিখিত বক্তব্যে কুমিল্লা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি সানাউল হক চারটি দাবি উপস্থাপন করেন।

তিনি বলেন, ৫ আগস্টের পর সকল দোকানপাট খুলে দেয়া, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল তথা হাটবাজারে বুথ খুলে টিকা গ্রহণের ব্যবস্থা করা, দোকান খোলার পর মাস্ক পরিধানসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি না মানলে প্রয়োজনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর জরিমানার অনুমোদন এবং করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে নগদ প্রণোদনা দেয়ার দাবি জানানো হয়।

কুমিল্লা দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আতিক উল্লাহ খোকন বলেন, ‘কুমিল্লায় ২০ হাজার ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ী আছে। প্রতি প্রতিষ্ঠানে লোকবল আছে চার-পাঁচজন করে। আমরা নিজেরা ঋণ করে তাদের যতটুকু সম্ভব বেতন দিচ্ছি। পুরো বেতন না পাওয়ায় অনেকে চাকরি ছেড়ে দিয়েছে। দোকানের মালামালগুলো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এছাড়া গ্যাস, বিদ্যুৎ বিল, দোকান ভাড়া, ট্রেড লাইসেন্সসহ সব ধরনের বিল দিতে হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সরকার সব প্রণোদনা দিলেও আমারা তা পাইনি। এ অবস্থায় ঘুরে দাঁড়াতে হলে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য দোকানপাট খুলে দেয়ার পাশাপাশি প্রণোদনার ব্যবস্থা করতে হবে। ৪ শতাংশ লাভে ব্যাংক ঋণ দিতে হবে। আমরা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা কখনো সরকারের টাকা মেরে খাইনি, খাবও না। এ পর্যন্ত যারা ঋণ খেলাপি করেছেন তারা সবাই বড় বড় শিল্পপতি।’

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- সমিতির সহ-সভাপতি আমিনুল ইসলাম, চকবাজার মার্কেট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আলী আশ্রাফ, স্টেশন রোড (উত্তর) ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক কামাল কাশেম, সাত্তার খান কমপ্লেক্স ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মামুনুল বকুল, কুমিল্লা দোকান মালিক সমিতির সদস্য এনামুল হক চৌধুরী, মোস্তাফিজুর রহমান বিপু প্রমুখ।

জাহিদ পাটোয়ারী/এসজে/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]