ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে গণপরিবহন চলছে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুমিল্লা
প্রকাশিত: ০৯:৩১ পিএম, ০১ আগস্ট ২০২১

পোশাক কারখানাসহ রফতানিমুখী শিল্পপ্রতিষ্ঠানের শ্রমিকদের কর্মস্থলে যোগ দেয়ার সুবিধার্থে সারাদেশে গণপরিবহন চলার অনুমিত দিয়েছিল সরকার। সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী রোববার (১ আগস্ট) দুপুর ১২টা পর্যন্ত গণপরিবহন চলার কথা ছিল। কিন্তু ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার অংশে এসব গণপরিবহন নির্দিষ্ট সময়ের পরও চলতে দেখা যায়।

হাইওয়ে পুলিশ বলছে, মানবিক বিবেচনায় সোমবার (২ আগস্ট) ভোর পর্যন্ত মহাসড়কে গণপরিবহন চলাচলে কোনো প্রকার বাধা দেয়া হচ্ছে না।

মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম, কুমিল্লার পদুয়ারবাজার বিশ্বরোড, কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকা, চান্দিনা ও দাউদকান্দি টোলপ্লাজাসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে বিকেল সাড়ে ৫টার পরও এ দৃশ্য চোখে পড়ে। সড়কে বাস, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশাসহ বিভিন্ন গণপরিবহন চলাচল করছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, নির্ধারিত সময়ের পরও মহাসড়কে স্টার লাইন, ইউনিক, শ্যামলী, রিল্যাক্স, গ্রাম বাংলা, চৌদ্দগ্রাম ট্রান্সপোর্ট, তিশা প্লাস ও যমুনা পরিবহনসহ নামি দামি অনেক বাস যাত্রী পরিবহন করে চলাচল করছে।

Comilla-(2).jpg

নির্ধারিত সময়ের পরও সড়কে কেন গাড়ি চালাচ্ছেন, এমন প্রশ্নে কুমিল্লার কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল জাঙ্গালিয়া থেকে ছেড়ে আসা যমুনা পরিবহনের হেলপার আব্দুল করিম বলেন, “গাড়ি না চালাইলে খামু কী? লকডাউনের কারণে পরিবার-পরিজন নিয়ে অনেক কষ্টে আছি। যদি পুলিশে ধরে তাদেরকে বলমু, ‘স্যার, গলায় পা দিয়ে মাইরালান, তবুও জরিমানা কইরেন না’।”

তিশা প্লাসের পরিচালক ইকবাল হোসেন জানান, সায়েদাবাদ থেকে কুমিল্লার উদ্দেশে ১২টার আগেই গাড়ি ছেড়ে এসেছিল। তবে সড়কে যানজট থাকায় গন্তব্যে পৌঁছতে দেরি হচ্ছে।

স্টার লাইন পরিবহনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলাউদ্দিনের মোবাইলে একাধিকবার কল দিয়েও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা রিজিয়নের পুলিশ সুপার (এসপি) মুহাম্মদ রহমত উল্লাহ জাগো নিউজকে বলেন, শ্রমিকদের কথা বিবেচনা করে সোমবার ভোর পর্যন্ত মহাসড়কে পরিবহন চলাচলে বাধা দেয়া হচ্ছে না। যথারীতি সকাল থেকে মহাসড়কে পুলিশ তৎপর থাকবে।

জাহিদ পাটোয়ারী/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]