‘জুয়ার আসর’ থেকে ভাইস-চেয়ারম্যান আটক, মুচলেকায় মুক্তি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মানিকগঞ্জ
প্রকাশিত: ১০:২৩ পিএম, ০২ আগস্ট ২০২১
ছবি : সংগৃহীত

মানিকগঞ্জে ‘জুয়ার আসরে’ অভিযান চালিয়ে সদর উপজেলার ভাইস-চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ তোতাসহ চারজনকে আটক করে র‌্যাব। পরে তারা তাস খেললেও ‘টাকার লেনদেন করেননি’ দাবি করলে র‌্যাব মুচলেকা নিয়ে তাদেরকে ছেড়ে দেয়।

আটক হওয়া অন্য তিনজন হলেন- উপজেলার বেতিলা মিতরা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) রনি মিয়া, কুশেরচর গ্রামের ইদ্রিস আলী ও আলাল ড্রাইভার।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে সদর উপজেলার নয়াকান্দি বাজারে একটি টংঘরে নিয়মিত তাসের মাধ্যমে জুয়ার আসর বসত। রোববার (১ আগস্ট) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে হানা দেয় র‌্যাবের একটি টিম। তাস খেলা অবস্থায় সেখান থেকে ভাইস-চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ তোতাসহ চারজনকে হাতকড়া পরিয়ে আটক করে নিয়ে যায়।

পরে পৌর মেয়র, স্থানীয় মসজিদ কমিটির সভাপতি ও বাজার মালিক সমিতির সদস্যরা র‌্যাবের টিমের সঙ্গে বসে মুচলেকার মাধ্যমে তাদেরকে ছাড়িয়ে নেন। মুচলেকায় স্বাক্ষর করেন মসজিদ কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট দেওয়ান মতিন ও বাজার মালিক সমিতির পক্ষে দেলোয়ার হোসেন।

জানতে চাইলে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ তোতা বলেন, ‘আমরা তাস খেলছিলাম। সেখানে টাকার লেনদেন বা জুয়া খেলা হচ্ছিল না। হঠাৎ র‌্যাব সেখানে গিয়ে আমাদের হাতকড়া পরিয়ে আটক করে। পরে মুরুব্বিদের মধ্যস্থতায় ছেড়ে দেয়।’

আটকের পর মুচলেকায় ছাড়া পাওয়া বেতিলা মিতরা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার রনি মিয়াও একই দাবি করেন।

জানতে চাইলে পৌর মেয়র রমজান আলী সাংবাদিকদের বলেন, ‘জুয়ার ঘটনায় আমার ভাইকে আটকের বিষয়টি র‌্যাব অবগত করে। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে সমাধান করা হয়।’ তারও দাবি তারা তাস খেলছিল, জুয়া খেলেননি।

জানতে চাইলে মানিকগঞ্জ র‌্যাবের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার আরিফ বলেন, ‘জুয়া খেলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে চারজনকে আটক করা হয়। পরে স্থানীয় মুরুব্বিদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে তাদেরকে মুচলেকায় মুক্তি দেয়া হয়। পরবর্তীতে তারা আর এ কাজে লিপ্ত হবেন না।’ র‌্যাবের কাছে আটকরা জুয়া না খেলার দাবি করেছেন বলেও জানান এই র‌্যাব কর্মকর্তা।

বি এম খোরশেদ/মানিকগঞ্জ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]