জয়পুরহাটে স্ত্রীর যৌতুকের মামলায় কাস্টমস কর্মকর্তা কারাগারে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি জয়পুরহাট
প্রকাশিত: ১২:৪৭ এএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার বিনইল গ্রামের এক স্কুলশিক্ষিকার দায়ের করা যৌতুকের মামলায় স্বামী সহকারী কাস্টমস কর্মকর্তা জুবায়ের রহমানকে (৩২) কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জয়পুরহাট চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. জাহাঙ্গীর আলম এ আদেশ দেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৪ সালে কালাই উপজেলার বিনইল গ্রামের আজগর আলীর মেয়ে স্কুলশিক্ষিকা খাইরুন নেছার সঙ্গে ১৫ লাখ টাকা দেনমোহরে সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার রান্ডিলা গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে ও সাতক্ষীরা জেলার সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা জুবায়ের রহমানের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় খাইরুন শিক্ষিকা হিসেবে চাকরি করলেও জুবায়ের ছিলেন বেকার। পরে জুবায়ের একটি ব্যাংকে কয়েকদিন চাকরি করার পর সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ পান জুবায়ের।

এর মধ্যে জুবায়ের প্রথম বিয়ে গোপন করে এক নারী চিকিৎসককে বিয়ে করেন। বিষয়টি গোপন রেখে জুবায়ের কয়েকদিন ধরে খাইরুনের কর্মস্থল বিনইল গ্রামে আসা-যাওয়ার করতে থাকেন। এরই একপর্যায়ে খাইরুনের পরিবারের কাছে জুবায়ের ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। বিষয়টি নিয়ে গত বছর ১৩ সেপ্টেম্বর জয়পুরহাট চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে খাইরুন যৌতুকের মামলা করেন।

মঙ্গলবার জামিনের জন্য জুবায়ের আদালতে হাজির হলে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এদিন আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মাকসুদ ও বাদীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মানিক হোসেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট নৃপেন্দ্রনাথ মন্ডল আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রাশেদুজ্জামান/এআরএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]