হাতিয়ায় জলদস্যু ‘হাসান বাহিনীর’ প্রধান অস্ত্রসহ আটক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ১১:২৫ এএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার জলদস্যু বাহিনীর প্রধান মোহাম্মদ হাসানকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। এসময় তার কাছ থেকে দুটি গুলিসহ একটি একনলা বন্দুক ও তিনটি অবৈধ পাইরোটেকনিক উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টার দিকে নিঝুম দ্বীপের সিডিএসপি বাজার সংলগ্ন এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। এরআগে তার বাহিনীর সঙ্গে কোস্টগার্ডের গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে।

আটক হাসান নিঝুম দ্বীপের মদিনা গ্রামের শফি উল্যাহর ছেলে। তার বিরুদ্ধে হাতিয়া থানায় ডাকাতিসহ অন্যান্য অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে হাতিয়ায় সহিংসতার পরিকল্পনাসহ বিভিন্ন এলাকায় ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বেআইনি অস্ত্র দেখিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগও রয়েছে।

হাসানকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন কোস্টগার্ডের হাতিয়া স্টেশনের কমান্ডার এ এস এম লুৎফর রহমান।

কোস্টগার্ড সূত্র জানায়, জলদস্যু হাসান বাহিনীর সদস্যরা নিঝুম দ্বীপের সিডিএসপি বাজারের কাছে গোপন আস্তানায় বসে নদীতে ডাকাতি ও আসন্ন ইউপি নির্বাচনে সহিংসতার পরিকল্পনা করছেন, এমন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে অভিযান চালায় কোস্টগার্ডের একটি দল। এ সময় হাসান বাহিনীর সদস্যরা টের পেয়ে কোস্টগার্ড সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। জবাবে কোস্টগার্ড সদস্যরাও পাল্টা পাঁচটি গুলি ছোঁড়েন। একপর্যায়ে হাসান বাহিনীর সদস্যরা পালিয়ে যাওয়ার সময় বাহিনীর প্রধান হাসানকে অস্ত্রসহ আটক করে কোস্টগার্ড।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ারুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। আইনগত প্রক্রিয়া শেষে শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) হাসানকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

ইকবাল হোসেন মজনু/ এফআরএম/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]