কক্সবাজারে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কক্সবাজার
প্রকাশিত: ১০:২৩ এএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

কক্সবাজারের চকরিয়া ও মহেশখালী পৌরসভা ও চার উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে। সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টায় তিনটি ভিন্ন টিমের নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে দুই পৌরসভার ২৮টি ও ১৪টি ইউনিয়নের ১৪০টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ সকাল ৮টায় শুরু হয়েছে। অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে জেলা নির্বাচন অফিস।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, চকরিয়া ও মহেশখালী পৌরসভার সব কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে। এছাড়া মহেশখালী, কুতুবদিয়া, চকরিয়া ও টেকনাফ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের ১৪০টি কেন্দ্রে ব্যালটপেপারসহ প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম কেন্দ্রে পৌঁছানো হয় রোববার বিকেলে। ওইদিনই ভোটগ্রহণে নিয়োজিত কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টরা দায়িত্বপ্রাপ্ত এলাকায় চলে যান। নির্বাচনকে সুষ্ঠু করতে প্রশাসনের সর্বোচ্চ প্রস্ততি রয়েছে।

জেলা নির্বাচন অফিসের তথ্যমতে, মহেশখালী পৌরসভায় ভোটার সংখ্যা ১৯ হাজার ৪৮৪ এবং চকরিয়া পৌরসভায় ৪৮ হাজার ৭২৪ জন। মহেশখালীর ১০টি কেন্দ্রে ৫৯টি এবং চকরিয়ার ১৮টি কেন্দ্রে ১৩৯টি বুথ রয়েছে। প্রতিটি বুথে একটি করে ইভিএম মেশিন থাকবে। দুই ধাপে ভোটারদের শনাক্ত করা হচ্ছে। ভোটদানের সময় ভোটররা ইভিএম মেশিনে তাদের দেখতে পাচ্ছেন।

jagonews24

পেকুয়া, কুতুবদিয়া, মহেশখালী ও টেকনাফ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে মোট ভোটার ৩ লাখ ১১ হাজার ২৩৪জন। সেখানে পুরুষ ভোটারের সংখ্যা ১ লাখ ৫৯ হাজার ৯৯৫ এবং নারী ভোটার ১ লাখ ৫১ হাজার ১২ জন। ৪ উপজেলার ১৪০টি ভোটকেন্দ্রে ৭৮০টি স্থায়ী ও ১১৩টি অস্থায়ী ভোটকক্ষ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কক্সবাজার জেলা নির্বাচন অফিসার এস. এম শাহাদাত হোসেন বলেন, সকাল ৮টা থেকে জেলার ১৪ ইউনিয়ন ও দুটি পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ইভিএমে ভোট দেওয়ার কৌশল মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে ভোটারদের দেখানো হয়েছে। এছাড়া নির্বাচনে সংশ্লিষ্ট প্রায় দুই হাজার জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান বলেন, নির্বাচনে যে কোনো ধরনের সহিংসতা রোধে পুলিশের সর্বাত্মক প্রস্তুতি রয়েছে। অতীতে এই জেলার নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করে দেখা গেছে, এখানে নির্বাচনপরবর্তী সহিংসতা হয়। সেটি মাথায় রেখেই পরিকল্পনা সাজানো হয়েছে। ২ পৌরসভা ও ১৪টি ইউনিয়নে পুলিশের টহল বাড়ানো হয়েছে। পাশাপাশি প্রত্যেক কেন্দ্রে পোশাকধারী পুলিশের পাশপাশি সাদা পোশাকেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করবে।

jagonews24

এদিকে, কুতুবদিয়া উপজেলার ৬টি ও টেকনাফের ৪টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ চলছে। মহেশখালীতে ৩টি ও পেকুয়ায় ১টিতে ভোটগ্রহণ চলছে। কুতুবদিয়া ও টেকনাফে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে। প্রায় প্রতিটি কেন্দ্রে নারী ভোটারের উপস্থিতি লক্ষণীয়। দুই পৌরসভায়ও ভোটার উপস্থিতি সন্তোষজনক।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম বলেন, নির্বাচনী এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে রাঙামাটি, বান্দরবান ও চট্টগ্রাম মহানগর থেকে আগত বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। নির্বাচনে পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি, আনসার সদস্যরাও দায়িত্ব পালন করছেন।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. মামুনূর রশীদ বলেন, সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে অবাধ ও নিরপেক্ষ ভোটগ্রহণের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত মাঠে রয়েছে।

সায়ীদ আলমগীর/ইএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]