হাসিনা-মনমোহনকে নিয়ে আপত্তিকর পোস্ট, বিএনপি নেতার কারাদণ্ড

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৮:২৭ এএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১

প্রায় অর্ধযুগ আগে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে আপত্তিকর পোস্ট দেন নাটোরের সিংড়ার স্থানীয় এক বিএনপি নেতা। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা। ওই মামলায় বিএনপির নেতাকে সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

রাজশাহী আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ইসমত আরা জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আজ (সোমবার) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহী সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক জিয়াউর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম আক্তার হোসেন (৪৫)। নাটোরের সিংড়া উপজেলার রাণীনগর শেরকোল গ্রামে তার বাড়ি। তিনি শেরকোল ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক।

আইনজীবী ইসমত আরা জানান, ২০১৫ সালের ২ সেপ্টেম্বর রাতে আক্তার হোসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন। এতে তিনি আপত্তিকর কথাবার্তা লেখেন। ওই পোস্টটি আল-মামুন নামে স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মীর নজরে এলে তিনি শেরকোল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোখলেসুর রহমানকে ঘটনাটি জানান। পরে মোখলেসুর রহমান বাদী হয়ে সিংড়া থানায় একটি মামলা করেন।

২০১৬ সালের ৮ মার্চ সিংড়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) দেবব্রত দাস আক্তার হোসেনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

ইসমত আরা আরও জানান, অভিযোগ গঠনের পর শুরু হয় মামলার বিচারপ্রক্রিয়া। বিচারিক কার্যক্রম চলাকালে আদালত ছয়জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন। সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে রাজশাহী সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক আক্তার হোসেনকে সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড, একইসঙ্গে এক লাখ টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও তিন মাস দণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করেন।

রায় ঘোষণার সময় আসামি আক্তার হোসেন আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

ফয়সাল আহমেদ/এমকেআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]