শেরপুরে জামায়াতের ১৭ নেতাকর্মী আটক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি শেরপুর
প্রকাশিত: ০৯:১২ এএম, ১৯ অক্টোবর ২০২১
ফাইল ছবি

রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্র ও গোপন বৈঠককালে শেরপুরে ১৭ জামায়াত নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) বিকেলে জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) তথ্যের ভিত্তিতে শহরের নারায়ণপুর বাগবাড়ীস্থ ‘দারুস শিফা’ নামে একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটকরা হলেন- যুদ্ধাপরাধের দায়ে ফাঁসি কার্যকর হওয়া জামায়াতের শীর্ষ নেতা কামারুজ্জামানের কথিত ড্রাইভার সদর উপজেলার গাজীর খামার এলাকার মো. ছোটন (৫০), জামায়াত নেতা আব্দুর রউফ (৪৮) ও গোলাম কিবরিয়া (৩৬), শেরপুর শহরের বাগরাকসা মহল্লার রফিকুল ইসলাম (৪০), সজবরখিলা মহল্লার সামস উদ্দিন (৬০), আনিসুর রহমান (৫০) ও শফিকুল ইসলাম (৫২), কান্দাপাড়া মহল্লার বুলবুল আহম্মেদ (৫৫), দিঘারপাড় মহল্লার আব্দুল মোনাফ খান (৪৮), ঝিনাইগাতী উপজেলার আব্দুল বারীর ছেলে আব্দুর রউফ (৪০), সদর উপজেলার চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের জঙ্গলদী গ্রামের গোলাম মোস্তফাসহ (৫৪) আরও ছয়জন।

তবে আটকদের দাবি, তারা ওই হাসপাতাল পরিচালনার সঙ্গে জড়িত। সেখানে রাষ্ট্র বা সরকারবিরোধী কোনো গোপন বৈঠক হচ্ছিল না।

পুলিশ বলছে, সাম্প্রতিক কুমিল্লার ঘটনা নিয়ে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাসহ বিশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সৃষ্টির লক্ষ্যে গোপন বৈঠকে মিলিত হয়েছিলেন তারা- এনএসআইয়ের এমন তথ্যের ভিত্তিতে গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে ওই হাসপাতালে অভিযান চালায় সাদা পোশাকধারী পুলিশ। এসময় বৈঠকে থাকা ১৭ নেতাকর্মীকে হাতেনাতে আটক করা হয়। তাদের হেফাজত থেকে ২৩টি মোবাইলসহ কিছু আলামত জব্দ করা হয়।

অভিযানে অংশ নেওয়া শেরপুর সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বন্দে আলী বলেন, আটকারা কী উদ্দেশ্যে সেখানে সমবেত হয়েছিলেন, তা জানতে জিজ্ঞাসাবাদসহ তদন্ত চলছে। সে রকম কিছু পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইমরান হাসান রাব্বী/জেডএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]