পাচার হওয়া ১৯ বাংলাদেশি নারীকে ফেরত দিলো ভারত

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বেনাপোল (যশোর)
প্রকাশিত: ১০:০৩ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০২১

বিভিন্ন সময়ে ভারতে পাচার হওয়া ১৯ বাংলাদেশি নারীকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে দেশে হস্তান্তর করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে পাচার হওয়া ওই নারীদের হস্তান্তর করে। দুই থেকে তিন বছর আগে বিভিন্ন সীমান্ত পথে তাদের ভারতে পাচার করা হয়েছিল বলে জানা গেছে।

দেশে ফেরাদের মধ্যে ১২ জনকে গ্রহণ করেছে এনজিও সংস্থা জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার, ছয়জনকে রাইটস যশোর এবং একজনকে গ্রহণ করেছে যশোর মহিলা আইনজীবী সমিতি। এই তিন এনজিও সংস্থা ও সমিতি তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করবে।

jagonews24

জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ারের যশোর শাখার সিনিয়ার প্রোগ্রাম অফিসার মুহিত হোসেন বলেন, সংসারে অভাব-অনটনের সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন সময়ে ভালো কাজের কথা বলে দালালরা তাদের ভারতে পাচার করে। পরে বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ কাজে তাদের ব্যবহার করে। ভারতীয় পুলিশ খবর পেয়ে পাচারকারীদের হাত থেকে উদ্ধার করে তাদের আদালতে পাঠায়। সেখান থেকে তাদের আশ্রয় হয় ভারতীয় বিভিন্ন এনজিও সংস্থা দ্বারা পরিচালিত শেল্টার হোমে। কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাস তাদের দেশে ফেরার বিষয়ে তৎপরতা শুরু করে। পরে দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগের এক পর্যায়ে ভারত সরকারের দেওয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটে আজ তারা দেশে ফিরে আসে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রাজু আহমেদ বলেন, ভারতে অবৈধভাবে বিভিন্ন বাসাবাড়িতে কাজ করার সময় পুলিশ তাদের আটক করে এবং আদালতে পাঠায়। সেখান থেকে পুনের রেসকিউ ফাউন্ডেশনসহ বিভিন্ন এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের হেফাজতে নেয় এবং বিভিন্ন শেল্টার হোমে রাখে। পরে তাদের সহযোগিতায় পাচার হওয়াদের দেশে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় পুলিশ। দেশে ফেরত আসারা নড়াইল, নারায়ণগঞ্জ, খুলনা, যশোর, গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, কক্সবাজার, নরসিংদী ও শেরপুর জেলার বাসিন্দা।

মো. জামাল হোসেন/ইউএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]