কাফনের কাপড় ও জবাই করা মুরগি পাঠিয়ে প্রাণনাশের হুমকি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি শেরপুর
প্রকাশিত: ০৮:২৬ এএম, ২৫ অক্টোবর ২০২১

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার নয়াবিল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা মুকুলকে মৃত্যুর জন্য প্রস্তুতি নিতে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। জবাই করা একটি মুরগি ও দাফনের পুরো সরঞ্জামসহ একটি চিরকুট লিখে শনিবার (২৩ অক্টোবর) এ হুমকি দেওয়া হয়। চিরকুটটি বাড়ির বারান্দায় পড়ে ছিল।

পরিবারের সদস্যরা জানান, নয়াবিল ইউনিয়ন পরিষদের ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা মুকুল হোসেন প্রতিদিনের মতো শনিবার রাতে খলিসাকুড়া গ্রামের নিজ বাড়িতে ঘুমিয়ে পড়েন। রোববার (১৪ অক্টোবর) ভোরে তার বাবা জবেদ আলী ফজরের নামাজ পড়ার জন্য ঘুম থেকে জেগে ওঠেন। তিনি ঘরের বারান্দায় একটি চিরকুটসহ দাফনের বেশকিছু সরঞ্জাম দেখতে পান। ওসব সরঞ্জামের মধ্যে এক সেট কাফনের কাপড়, দুইটি গোলাপ জলের বোতল, আগরবাতির দুইটি প্যাকেট, একটি কেয়া সাবান, জবাই করা একটি মুরগি এবং সঙ্গে একটি চিরকুট ছিল।

চিরকুটে লেখা রয়েছে, ‘এই মুকুল, তুই কি তোর বউকে বিধবা করতে চাস ও তোর সন্তানকে এতিম করতে চাস? তোর কি জীবনের মায়া নাই? আমরা তোকে কখন মারবো আমরা নিজেও জানি না। তাই তুই তোর বাসা থেকে বের হলে কালেমা পড়ে বের হস। এই মুরগিটা দেখেছিস? মুরগির মতো করে সাইজ করবো। শালা মুকুল, তোর জন্য কাফনের কাপড় পাঠিয়ে দিলাম। তুই মৃত্যুর জন্য প্রস্তুত থাকিস।’

জানতে চাইলে মুকুল হোসেন বলেন, আমার সঙ্গে কারো শত্রুতা নেই। কে বা কারা কেন এ কাজ করেছে তা বলতে পারছি না। তবে আমি জীবননাশের হুমকিতে আছি।

নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বছির আহমেদ বাদল জানান, এ বিষয়ে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

ইমরান হাসান রাব্বী/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]