ফুফাতো ভাই এমপি, ‘দাপটে অসহায়’ অপর প্রার্থী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ১১:০৩ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০২১

ফুফাতো ভাই আওয়ামী লীগের এমপি, ভগ্নিপতি জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি। এক চেটিয়া দাপটের পর আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েও পাননি। তাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন এনামুল হক টিপু।

এবার উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অপর এক স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীকে হুমকির অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। এ নিয়ে বুধবার (২৪ নভেম্বর) প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন চেয়ারম্যান প্রার্থী জাকি।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কাজী জাকি উদ্দিনের প্রচারণা কাজে অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী এনামুল হক টিপু বাধা দিয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছেন। জাকিরের ঘোড়া প্রতীকে ভোটাররা যেন ভোট না দেন, সেজন্য টিপু চাপ প্রয়োগ করছেন।

অভিযোগের অনুলিপি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও নির্বাচন কর্মকর্তাকেও দেওয়া হয়েছে। আগামী ২৮ নভেম্বর শ্রীরামপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

জাকি ও টিপু দুজনের বাড়ি শ্রীরামপুর ইউনিয়নের শ্রীরামপুর গ্রামে। জাকি ‘ঘোড়া’ এবং টিপু ‘টেলিফোন’ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, একরামুল হক টিপু ও ইমামুল হক টিটুসহ তার লোকজন চেয়ারম্যান প্রার্থী কাজী জাকি উদ্দিনকে তার নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা দিয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছেন। গ্রামের ভোটাররা যেন ‘ঘোড়া’ প্রতীকে ভোট না দিয়ে টেলিফোন প্রতীকে দেন সেজন্য চাপ প্রয়োগ করছেন। এর ব্যতীক্রম হলে ভোটারদের মারপিট করবেন বলেও হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া মনোনয়নপত্র দাখিলের পর থেকে জাকি ও তার স্বজনদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

অভিযোগে আরও বলা হয়, শ্রীরামপুর গ্রামের ৫, ৬, ৭, ৮ এবং ৯নং ওয়ার্ডের (দড়িশ্রীরামপুর) কেন্দ্রগুলোতে ভোটাররা যদি টিপুর টেলিফোন প্রতীকে ভোট না দেয়, তাহলে ভোটারদের মারপিট করে নিজেরাই ব্যালটে সিল মারবে। এ অবস্থায় ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে যেতে ভয় পাচ্ছেন। এছাড়া জাকির কর্মী-সমর্থকরাও নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে সাহস পাচ্ছেন না। ভোটাররা যেন শান্তিপূর্ণভাবে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারেন এবং জাকি যেন নির্বিঘ্নে তার প্রচারণা চালাতে পারেন সেই ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য লিখিত অভিযোগে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

তবে অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করে স্বতন্ত্র প্রার্থী এনামুল হক টিপু বলেন, ফুফাতো ভাই বাঞ্ছারামপুরের আওয়ামী লীগের এমপি ক্যাপ্টেন তাজ ও তার ভগ্নিপতি জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতির বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়েছেন জাকি। আমার দায়ের করা একটি মামলার আসামি হওয়ায় আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন তিনি। ভোটারদের হুমকি ও প্রচারণায় বাধা দেওয়ার অভিযোগ সঠিক নয়।

এ ব্যাপারে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জিল্লুর রহমান বলেন, লিখিত অভিযোগ আমরা পেয়েছি। অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। অবাধ শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করার জন্য সবধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

আবুল হাসনাত/এফএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]