চাচার পরীক্ষা দিতে গিয়ে কারাগারে ভাতিজা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নওগাঁ
প্রকাশিত: ০৮:২৮ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১

নওগাঁর নিয়ামতপুরে চাচার হয়ে এইচএসসি পরীক্ষা দেওয়ার সময় ধরা পড়েছেন ভাতিজা শ্যামাপদ বর্মণ (১৯)।

রোববার (৫ ডিসেম্বর) বেলা সোয়া ১১টায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মনজুরুল আলম তাকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ১০০ টাকা জরিমানা করেন।

শ্যামাপদ উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের গাহইল গ্রামের ভবেশ বর্মণের ছেলে। তিনি নিয়ামতপুর সরকারি কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

আদালত সূত্র জানায়, সকালে টিকরামপুর টেকনিক্যাল অ্যান্ড ম্যানেজন্টে কলজের এইচএসসি ভোকেশনাল শাখার দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষা চলছিলো। এ কেন্দ্রে মোট ২৫৪ পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। এ কেন্দ্রে কার্তিক বর্মণের পরিবর্তে ভাতিজা শ্যামাপদ পরীক্ষার্থী সেজে পরীক্ষায় অংশ নেন। কার্তিক বর্মণ উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের গাহইল গ্রামের মনজম বর্মণের ছেলে। তিনি সরকারি চাকরি করেন।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মনজুরুল আলমের নেতৃত্বে একাডেমিক সুপারভাইজার জাকির হোসেন ও কেন্দ্রসচিব গোলাম শফি কামালসহ কক্ষ পরিদর্শনে গিয়ে তাকে শনাক্ত করেন। পরে জিজ্ঞাসাবাদে তার চাচা কার্তিক বর্মণের পরিবর্তে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে বলে শ্যামাপদ নিজের অপরাধ স্বীকার করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক মনজুরুল আলম বলেন, পাবলিক পরীক্ষা আইনে অভিযুক্তকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ১০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

আব্বাস আলী/আরএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]