ঠিকানাহীন বৃদ্ধা ফিরতে চান আপন নিবাসে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ১০:৩৭ এএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২২
ফরিদপুরে এক কৃষকের বাড়িতে আশ্রয় নেওয়া বৃদ্ধা

ভুলেছেন নিজের নাম-ঠিকানা। বলতে পারছেন না কিছুই। শুধু মানুষ দেখলে ফ্যাল ফ্যাল করে তাকিয়ে থাকেন। চোখেমুখে আপন নিবাসে ফেরার আকুতি।

আপনজনদের কাছে ফিরতে হাতের ইশারায় বোঝানোর চেষ্টা। এমনই একজন ঠিকানাহীন বৃদ্ধার খোঁজ মিলেছে ফরিদপুরের মধুখালীতে। বাড়ি-ঘর, আপনজনসহ সব হারানো বৃদ্ধা পথে পথে ঘুরে আশ্রয় নিয়েছেন মধুখালী উপজেলার এক কৃষকের বাড়িতে।

উপজেলার বাগাট ইউনিয়নের চানপুর গ্রামের আশ্রয়দাতা, কৃষক মো. আকিদুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, গত কয়েক মাস আগে বৃদ্ধা মানুষটি হঠাৎ আমার বাড়ির বারান্দায় আশ্রয় নেন। কিন্তু তিনি নাম, ঠিকানা ও পরিচয় কিছু বলতে পারেন না। সেই থেকে মানবিক দৃষ্টিতে আমার বাড়িতে তাকে আশ্রয় দিয়েছি। তার হাতের ইশারা ও আকার-ইঙ্গিত দেখে যতটুকু বুঝতে পেরেছি সে অনুযায়ী বিভিন্ন স্থানে তার আত্মীয়-স্বজন ও পরিবারের ঠিকানা খোঁজাখুঁজির চেষ্টা চালিয়েছি।

কৃষক আকিদুল ইসলাম আরও বলেন, এ বিষয়ে আমি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান, থানা ও সমাজসেবা অফিসে জানিয়েছি। তবে এখন পর্যন্ত তারা কেউ উপযুক্ত কোনো সহায়তা করতে পারেননি।

এ ব্যাপারে মধুখালী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. জুলহাস জাগো নিউজকে বলেন, যদিও এটা আমাদের দায়িত্ব নয়। তারপরও থানায় বিষয়টি জানানোর পর আশ্রয়দাতা আকিদুলের বাড়িতে গিয়েছি। আমরাও চেষ্টা করছি। সমাজসেবা অফিসে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাগাট ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. মতিয়ার রহমান খান জাগো নিউজকে বলেন, এরকম একজন বৃদ্ধা আমার ইউনিয়নের মো. আকিদুলের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। কৃষিকাজ কাজ করা গরীব চাষি আকিদুলকে ধন্যবাদ জানাই। এটা তার একটা মহানুভবতা। যেখানে ওনার নিজেরই চলা কষ্টকর সেখানে আরেকজনকে আশ্রয় দিয়ে অনেক বড় মনের কাজ করেছেন। আমি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সব ধরনের সাহায্য-সহযোগিতা করার চেষ্টা করা হবে।

এ ব্যাপারে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা কল্লোল সাহা জাগো নিউজকে বলেন, আমরা তার বিষয়ে জানতে পেরেছি। আমরা ১৮ বছর পর্যন্ত এ ধরনের ব্যক্তিদের সেবা দিতে পারি। কিন্তু ওনার বয়স ১৮ বছরের বেশি হওয়ায় আমাদের সেবার কোনো মাধ্যম নেই। তারপরও আমাদের পক্ষ থেকে সহযোগিতার চেষ্টা করা হবে।

এন কে বি নয়ন/এমআরআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]