শিক্ষক বাবার বেতনের দাবিতে প্ল্যাকার্ড হাতে সন্তানরা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পটুয়াখালী
প্রকাশিত: ০৫:৪৮ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০২২

‘বাবার বেতন নাই, আমার খাবার নাই, বাবার বেতন চাই’ এমন প্ল্যাকার্ড হাতে মানববন্ধনে দাঁড়িয়েছে অনুরাধা সরকার নামে পাঁচ বছরের এক শিশু। পটুয়াখালী আবাসিক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্লাস ওয়ানের ছাত্রী সে। এ সময় তার ক্লাসে থাকার কথা থাকলেও শিক্ষক বাবার বেতনের দাবিতে মানববন্ধনে দাঁড়ায় সে।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে পটুয়াখালী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে শুধু অনুরাধা নয় আরও দুই শিশু সাইফা নুর (৪ বছর ৫ মাস) ও রুকাইয়া রুশতা (৮) প্ল্যাকার্ড হাতে অংশ নেয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত শিক্ষকরা জানান, ২০১০ সালে দেশের পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটগুলোতে ‘স্কিলস অ্যান্ড ট্রেনিং এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট’ শীর্ষক নামে একটি প্রকল্প শুরু হয়। এতে ২০১২ ও ২০১৪ সালে দুই ধাপে ১ হাজার ১৫ জন শিক্ষকের নিয়োগ হয়। যার মধ্যে বর্তমানে ৭৭৭ জন কর্মরত। পটুয়াখালী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে আছেন ১১ জন। ২০১৯-২০ অর্থবছরে শিক্ষকদের রাজস্ব খাত থেকে এক বছরের বেতন দেওয়া হয়। এর আগে ২০১৯ সালের ২২ মে প্রধানমন্ত্রী শিক্ষকদের রাজস্ব খাতে স্থানান্তর সারসংক্ষেপ অনুমোদন করেন।

jagonews24

তবে এরপর থেকে দীর্ঘ ১৮ মাস ধরে তারা বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন প্রকৌশলী সঞ্জয় চন্দ্র সরকার, মো. সালাউদ্দিন ও প্রকৌশলী মাসুমা আক্তার।

পটুয়াখালী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ মো. মোস্তাফিজুর রহমান খান জাগো নিউজকে বলেন, বিষয়টি অমানবিক। আমরা কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। এ শিক্ষকদের ওপর নির্ভর করে পলিটেকনিকের ৭০ শতাংশ কাজ চলমান। তাদের রাজস্ব খাতে স্থানান্তরের পাশাপাশি বেতন-ভাতা চলমান রাখার দাবি করছি।

আব্দুস সালাম আরিফ/এসজে/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]