নির্বাচনে জিতিয়ে দেওয়ার নামে ৩ লাখ টাকা নেওয়া প্রতারক গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাইবান্ধা
প্রকাশিত: ০৯:০৬ পিএম, ১৯ জানুয়ারি ২০২২
ফাইল ছবি

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীকে জিতিয়ে দেওয়ার প্রলোভনে বিকাশে দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় প্রতারক চক্র। ওই চক্রের সদস্য আল-আমিনকে (২৭) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেলে গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইজার উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে ভোরের দিকে ভোলা জেলা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গতবছরের ২৬ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মুন্সি রেজওয়ানুর রহমান। ১৮ ডিসেম্বর গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি ইজার উদ্দিনের সরকারি মোবাইল নম্বর ক্লোন করে তিন ইউনিয়নে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী নৌকার প্রার্থীকে ফোন করে প্রতারক চক্র।

তারা প্রথমে রেজওয়ানকে ফোন করে কথিত ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে কথা বলান এবং বিজয়ী করতে সব ধরনের আশ্বাস দেন। তাদের কথামতো ছয়টি নম্বর থেকে দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেয়- রেজওয়ান মুন্সি।

পরবর্তী সময়ে কোচাশহর ইউনিয়নের আবু সুফিয়ান ও শালমারা ইউনিয়নের আনিছের কাছে একইভাবে ফোন করা হয়। বিষয়টির সত্যতা যাচাইয়ে তারা গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি ইজার উদ্দিনের সঙ্গে ব্যক্তিগত ফোনে যোগাযোগ করলে প্রতারণার বিষয়টি জানতে পারেন।

বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নামে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে তথ্যপ্রযুক্তির সহযোগিতায় প্রতারকচক্রের সদস্য আল-আমিনকে (২৭) ভোলা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার আল আমিন ভোলা জেলার দৌলতখান উপজেলার সৈয়দপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে।

এ ব্যাপারে গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি ইজার উদ্দিন বলেন, এই প্রতারণার সঙ্গে বেশ কিছু সদস্য জড়িত রয়েছে। তারা সংঘবদ্ধভাবে সারাদেশে এ ধরনের প্রতারণা করছেন। আল-আমিন তাদেরই একজন। এ মামলায় মূল হোতাসহ প্রতারক চক্রের বাকি সদস্যদের আটকের চেষ্টা চলছে।

জাহিদ খন্দকার/এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]