পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পিরোজপুর
প্রকাশিত: ০৪:৪১ পিএম, ২২ জানুয়ারি ২০২২
বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি মো. জাহিদুল ইসলাম টিটু ও সাধারণ সম্পাদক অনিরুজ্জামান অনিক

প্রায় চার বছর আগে দুই নেতাকে দায়িত্ব দিয়ে করা পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত হয়েছে। শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) রাতে কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় এবং সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

২০১৮ সালের ৬ মে মো. জাহিদুল ইসলাম টিটুকে সভাপতি এবং অনিরুজ্জামান অনিককে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরের জন্য পিরোজপুর জেলা কমিটির অনুমোদন দেয় তৎকালীন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগ এবং সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন। সভাপতি টিটু এবং অনিকের মধ্যকার দ্বন্দ্বে পূর্ণাঙ্গ রূপ পায়নি জেলা কমিটি।

সর্বশেষ শুক্রবার রাতে সাধারণ সম্পাদক অনিক একক স্বাক্ষরে সদর উপজেলা কমিটি ঘোষণা করে। এরপর ফেসবুকে সাধারণ সম্পাদকের পাশাপাশি সভাপতি টিটু স্বাক্ষরিত একই কমিটির একটি কপি ছড়িয়ে পড়ে। তবে টিটু দাবি করে কমিটিতে স্বাক্ষরটি তার নয়। এরপর রাতেই পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

এদিকে দীর্ঘ সময় পরও পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় পদপ্রত্যাশী ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে। তবে আগামীতে কেন্দ্র পিরোজপুরের জন্য একটি দক্ষ কমিটি উপহার দিবে বলে প্রত্যাশা তাদের।

ছাত্রলীগের জেলা কমিটিতে পদ প্রত্যাশী এবং জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জুনায়েদ আহম্মেদ রাসেল বলেন, দীর্ঘদিন ধরে জেলা ছাত্রলীগের কমিটি না হওয়ায় ছাত্রনেতাদের মেধার বিকাশ ঘটেনি। তাই পরবর্তীতে কমিটিতে যাতে ত্যাগী, পরিশ্রমী ও মেধাবী ছাত্রদের মূল্যায়ন করা হয় এ দাবি জানাই।

তবে দীর্ঘ সময়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনে ব্যর্থ হওয়ায় ছাত্রলীগের কার্যক্রম মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হয়েছে বলে মনে করেন পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. ইরতিজা হাসান রাজু।

জেলা ছাত্রলীগের আরেক সাবেক সভাপতি মো. মাকসুদুল ইসলাম সিকদার লিটন বলেন, স্থানীয় রাজনীতির দ্বন্দ্বের কারণে টিটু এবং অনিক দুই মেরুতে অবস্থান করছিল। এছাড়া দলীয় কিছু কার্যক্রমে আলাদা আলাদাভাবে অংশ নেওয়া ছাড়া তাদের সাংগঠনিক তেমন কোনো তৎপরতা ছিল না। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় কমিটির আরও আগে সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিৎ ছিল।

এসজে/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]