সেই চাষির তরমুজ ক্ষেত পরিদর্শনে তদন্ত কমিটি

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি কলাপাড়া (পটুয়াখালী)
প্রকাশিত: ০৪:৩৬ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২২

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্ত সেই তরমুজ চাষির ক্ষেত পরিদর্শন করেছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের দুই সদস্য।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুর ১২টায় উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নে পশ্চিম চাপলী গ্রামের ওই ক্ষেত পরিদর্শন করেন তারা। এসময় স্থানীয় বনবিভাগের কয়েকজন কর্মকর্তাও উপস্থিত ছিলেন।

গত ১৭ জানুয়ারি ‘কৃষকের ১০ হাজার তরমুজ গাছ উপড়ে ফেললেন পাউবো প্রকৌশলী-’ শিরোনামে জাগো নিউজে সংবাদ প্রকাশের পর বিষয়টি নজরে আসে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের।

jagonews24

জানা যায়, প্রায় দুই মাস আগে পানি উন্নয়ন বোর্ড এবং বনবিভাগের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে মৌখিক অনুমতি নিয়ে উপজেলার ধুলাস্বার ইউনিয়নের পশ্চিম চাপলী গ্রামের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ঢালে ১৫ হাজার তরমুজ গাছ রোপণ করেন দেলোয়ার খলিফা। কিন্তু গত ১৬ জানুয়ারি সকালে হঠাৎ দেলোয়ারের ১০ হাজার তরমুজ চারা উপরে ফেলেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতাধীন বেড়িবাঁধ রক্ষা প্রকল্পের মাঠ প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম। ওই কর্মকর্তার হা-পা ধরেও তিনি তাকে ফেরাতে না পেরে কান্নায় ভেঙে পরেন।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী শাহরিয়ার সরকার জাগো নিউজকে জানান, তদন্ত কমিটির সদস্য হিসেবে আমরা দুজন তরমুজ খেত পরিদর্শন করতে এসেছি। প্রত্যক্ষদর্শী, বন বিভাগ ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের সবাই রয়েছেন। তদন্ত চলমান সবকিছু যাচাই করে এ সম্পর্কে আমরা জানাতে পারবো।

jagonews24

আফতাব নামের ওই কমিটির এক সদস্য জানান, তদন্ত চলছে। এ মুহূর্তে বেশি কিছু বলা যাচ্ছে না। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।

আসাদুজ্জামান মিরাজ/আরএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]