ঋণের টাকা ফেরত না দেয়ায় শিক্ষার্থীকে শিকলে বেঁধে নির্যাতন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বরগুনা
প্রকাশিত: ১১:২০ এএম, ২৯ জানুয়ারি ২০২২

বরগুনায় এক শিক্ষার্থীকে শিকলে বেঁধে নির্যাতনের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। বরগুনার বেতাগি উপজেলার বুড়া মজুমদার ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী উজ্জ্বল ঢাকী উপজেলার কাউনিয়া কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র।

জানা যায়, উপজেলার বুড়া মজুমদার ইউনিয়নের পুলেরহাট এলাকার পরিমল চন্দ্র ঢাকীর ছেলে উজ্জ্বল ঢাকী এলাকার ব্যবসায়ী মো. আরাফাতের কাছ থেকে কিছু টাকা ঋণ হিসেবে নেয় । সে টাকা পরিশোধে বিলম্ব হওয়ায় ২৪ জানুয়ারি ব্যবসায়ী আরাফাত স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য মো. রাজু মৃধার সহায়তায় উজ্জ্বলকে শিকল দিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে। পরে ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

উজ্জ্বলের বাবা পরিমল ঢাকী জানান, যে কারো ধার দেনা থাকতে পারে এজন্য শিকল দিয়ে বেঁধে রেখে মারধর করতে হবে? অপমানে ছেলেটা মানষিকভাবে ভেঙে পড়েছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

ভুক্তভোগী কলেজছাত্র উজ্জ্বল বলেন, সে আমাকে একা পেয়ে সাবেক ইউপি সদস্যকে সঙ্গে নিয়ে শিকল দিয়ে বেঁধে মারধর করে। এছাড়া নির্বাচনের সময় আমার পরিবার ওই ইউপি সদস্যের পক্ষে না কাজ করায় আমাদের ওপর ক্ষীপ্ত হয়ে এমন অত্যাচার করেছে। আমাকে ও আমার পরিবারকে সামাজিক ভাবেও হেনস্থা করেছে।

ব্যবসায়ী আরাফাত হোসেন বলেন, উজ্জ্বল ও তার পরিবার আমার সুপরিচিত। আগে অনেকবার লেনদেনও করেছে। তবে এইবার টাকা দিতে বিলম্ব করায় আমি ওকে দোকানে বসিয়ে রেখেছি। কে বা কারা উজ্জ্বলকে শিকল দিয়ে বেঁধে রেখেছিলো আমার জানা নেই। তবে সাবেক ইউপি সদস্য রাজু মৃধা উপস্থিত ছিলেন।

সাবেক ইউপি সদস্য রাজু মৃধা বলেন, বিষয়টি দৃষ্টিকটু হয়েছে। তবে এ ছাড়া টাকা উঠানোর কোনো উপায় ছিলো না। তবে তাকে মারধর করা হয়নি।

বেতাগী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুস সালাম বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]