মির্জা পরিবারের ঐতিহ্য রক্ষা করলো ফয়সাল আমিন


প্রকাশিত: ০২:৩০ পিএম, ১২ জানুয়ারি ২০১৬

স্বাধীনতার পর থেকে ঠাকুরগাঁওয়ের রাজনৈতিক অঙ্গনে মির্জা পরিবার বিভিন্নভাবে অবদান রেখে চলেছে। আর এ কারণেই এই পরিবারটি ঠাকুরগাঁওসহ আশপাশের জেলায় বেশ পরিচিত। রাজনৈতিক জীবনে মির্জা রুহুল আমিন (চোখা মিয়া) এরশাদ সরকারের কৃষিমন্ত্রী ছিলেন। তিনি ছিলেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রীও। এরপর তার ছেলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিএনপি কৃষি প্রতিমন্ত্রী পরে বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।

এর আগে ১৯৭৪ সালে সাবেক মন্ত্রী মির্জা রুহুল আমিন, ১৯৮৮ সালে মির্জা রুহুল আমিনের বড় ছেলে বর্তমান বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও ২০১৬ সালে মির্জা রুহুল আমিনের ছোট ছেলে মির্জা ফয়সল আমিন ঠাকুরগাঁও পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হয়ে মির্জা পরিবারের ঐতিহ্য রক্ষা করলো। এমনটাই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে ঠাকুরগাঁও শহরে।

পারিবারিক সূত্র থেকে জানা গেছে, সাবেক মন্ত্রী মির্জা রুহুল আমিন ঠাকুরগাঁও পৌরসভায় ১৯৭৪ সাল থেকে কয়েকবার পৌর চেয়ারম্যান নিবার্চিত হয়েছেন। চেয়ারম্যান থাকাকালীন তাকে পৌরসভার উন্নয়নের কাণ্ডারি খেতাব দিয়েছিলেন পৌরবাসী। পরে তিনি বিএনপি আমলে ঠাকুরগাঁও-১ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হয়ে সমাজকল্যাণমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এরপর থেকে মির্জা রুহল আমিনের বড় ছেলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ১৯৮৮ সালে রাজনৈতিক অঙ্গনে প্রবেশ করে প্রথমে ঠাকুরগাঁও পৌর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। পরে ১৯৯৪ সালে জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী খাদেমুল ইসলামে কাছে পরাজিত হন। পরে ২০০১ সালে বর্তমান ঠাকুরগাঁওয়ের-১ আসনের এমপি সাবেক পানি সম্পদমন্ত্রী রমেশ চন্দ্রকে পরাজিত করে মির্জা আলমগীর এমপি নির্বাচিত হয়। এখন তিনি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এবার ঠাকুরগাঁও পৌরসভায় মির্জা পরিবারের ছোট ছেলেও পৌর মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তাই সাধারণ মানুষ মনে করছেন বিগত আমলে মির্জা পরিবার ঠাকুরগাঁওয়ের উন্নয়নে যে অবদান রেখেছেন সেই ধারবাহিকতা অব্যাহত রাখবেন নব নির্বাচিত মেয়র মির্জা ফয়সল আমিন।

পৌর শহরের সমাজ সেবক রফিকুল ইসলাম জানান, মির্জা রুহুল আমিন ছিলেন ঠাকুরগাঁওয়ের মাটি ও মানুষের নেতা। তারই ঐতিহ্য ধরে রেখেন পরিবারটি। আশা করি এই পরিবারটি দেশ ও দশের কল্যাণে কাজ করে যাবে।

ঠাকুরগাঁওয়ের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ মনতোষ কুমার দে জানান, মির্জা পরিবার এবারও ঠাকুরগাঁওয়ের পৌরসভার নেতৃত্বে এসেছে। মির্জা ফয়সল আমিন তার বাবা ও বড় ভাইয়ের মতো জনগণের উন্নয়নে কাজ করে যাবেন।

নব নির্বাচিত মেয়র মির্জা ফয়সল আমিন বলেন, ঠাকুরগাঁও পৌরবাসীর ভালোবাসায় আমি মেয়র নির্বাচিত হয়েছি। মেয়র নির্বাচিত হয়ে আমার এখন অনেকটা দায়িত্ব বেড়ে গেল। আমি আমার বাবা ও বড় ভাই মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মতো ঠাকুরগাঁও পৌরসভাকে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিতে চাই। মির্জা পরিবারের সুনাম অব্যাহত রাখতে পৌরবাসী ও সকলের সহযোগিতায় ঠাকুরগাঁও পৌরসভাকে দেশের মডেল পৌরসভা করতে চাই।

এমএএস/আরআইপি