মাটিরাঙ্গায় সুপেয় পানি পেলো ১৬০ পরিবার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি
প্রকাশিত: ০৩:১৫ পিএম, ৩০ এপ্রিল ২০২২
জুমিয়া পূবর্বাসন এলাকায় প্রকল্পের উদ্বোধন করে সেনাবাহিনী

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় ১৬০ পরিবারের জন্য সুপেয় পানির ব্যবস্থা করেছে সেনাবাহিনী। শনিবার (৩০ এপ্রিল) সকালে সদর ইউনিয়নের আলুটিলা জুমিয়া পূবর্বাসন এলাকায় প্রকল্পের উদ্বোধন করেন খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আলম।

এসময় খাগড়াছড়ি সদর জোন অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. সাইফুল ইসলাম সুমন, খাগড়াছড়ি রিজিয়নের জিএসও-টু (আই) মেজর জাহিদ হাসান, খাগড়াছড়ি সদর জোনের উপ-অধিনায়ক রিয়াজুল ইসলাম, মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান হেমেন্দ্র ত্রিপুরা, স্থানীয় ইউপি সদস্য শান্তিময় ত্রিপুরাসহ স্থানীয়রা উপস্থিত ছিলেন।

army1

আলুটিলা জুমিয়া পুনর্বাসন এলাকার কার্বারী সূর্যকিরণ ত্রিপুরা বলেন, যুগের পর যুগ এখানকার মানুষ পাহাড়ের নিচ থেকে পানি সংগ্রহ করে ব্যবহার করে আসছে। শুষ্ক মৌসুমে আমাদের কষ্টের শেষ থাকে না। সেনাবাহিনী আমাদের দীর্ঘদিনের পানি সংকটের সমাধান করেছে।

মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান হেমেন্দ্র ত্রিপুরা বলেন, এখানকার চার গ্রামের ১৬০ পরিবারের জন্য সুপেয় পানির ব্যবস্থা করেছে সেনাবাহিনী।

army1

খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, পাহাড়ে সন্ত্রাসীরা চাঁদাবাজি করে বিলাসবহুল জীবন যাপন করলেও দুর্গম পাহাড়ের মানুষের কথা ভাবে না।

এর আগে এ এলাকার মানুষ জন্মের পর থেকে পাহাড়ের চূড়া থেকে নেমে আসা ঝিরি-ঝরনা বা কুয়োর পানি সংগ্রহ করতেন। অনেকে এসব দূষিত পানি খেয়ে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হতেন। ওই এলাকার ৩৫ বছরের দুর্দশার লাঘব হয়েছে।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]