মেলান্দহে পাঁচদিনে ৫ মরদেহ উদ্ধার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি জামালপুর
প্রকাশিত: ০৪:৫৪ পিএম, ১১ মে ২০২২

জামালপুরের মেলান্দহে বিনা আক্তার (২২) নামে আরেক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে উপজেলায় গত পাঁচদিনে পাঁচটি মরদেহ উদ্ধার করলো মেলান্দহ থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (১০ মে) রাতে উপজেলার শ্যামপুর ইউনিয়নের শ্যামপুর কমিউনিটি ক্লিনিকের পাশ থেকে বিনার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তিনি ওই এলাকার মৃত বাদশা মিয়ার মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানায়, বিনা আক্তার স্বামী পরিত্যক্তা। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, মঙ্গলবার রাতে বিনাকে কে বা কারা বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে কুপিয়ে হত্যা করে। তার গলায় ও ডান উড়ুতে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এর আগে, গত ৭ মে উপজেলার ফুলকোচা ইউনিয়নের পাহাড়িপটল গ্রামে শ্বশুরবাড়ির রান্নাঘরের আড়া থেকে চায়না বেগম (২২) নামে এক গৃহবধূ এবং একই উপজেলার শ্যামপুর ইউনিয়নের কাজাইকাটা গ্রামের নিজ বাড়ির পাশের গাছে ভেকুচালক আনিছের (২৩) ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

jagonews24

এছাড়া ৯ মে রাতে উপজেলার ডেফলা ব্রিজ সংলগ্ন বসতভিটা থেকে জুঁই আক্তার (২৬) নামে এক গৃহবধূ এবং ফুলকোচা ইউনিয়নের রেখিরপাড়া এলাকার থেকে কাকলি আক্তার (১৫) নামে এক মাদরাসা শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ বিষয়ে সহকারী পুলিশ সুপার (মেলান্দহ-মাদারগঞ্জ সার্কেল) সজল কুমার সরকার জাগো নিউজকে বলেন, মূলত পারিবারিক এবং সামাজিক অবক্ষয়ের কারণে হরহামেশাই এমন ঘটনা ঘটছে। এর জন্য আমাদের পুলিশ কর্মকর্তারা সার্বক্ষণিক কাউন্সিলিংয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন কাজ করে যাচ্ছে।

তবে বুধবার যে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। হত্যার রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে মেলান্দহ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

মো. নাসিম উদ্দিন/এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]