ঠাকুরগাঁওয়ে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, স্বামী আটক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ঠাকুরগাঁও
প্রকাশিত: ০৯:৫৬ পিএম, ১২ মে ২০২২

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে রহিমা খাতুন (২০) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ মে) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে উপজেলার চন্দরিয়া এলাকা থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় নিহতের স্বামী শাহিন হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের বড় ভাই দুরুল হুদার অভিযোগ, পারিবারিক কলহের জেরে বুধবার রাতে শাহিন তার বোনকে পিটিয়ে হত্যা করেন। এরপর মরদেহ গুচ্ছগ্রামের নির্মাণাধীন একটি ঘড়ের আড়ায় ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করেন। এ ঘটনার বিচার দাবি করেন তিনি।

নিহত রহিমার মা মনোয়ারা বেগম বলেন, আমার মেয়েকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় রক্তাক্ত আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। রহিমাকে টাকার জন্য প্রায়ই মারধর করতো শাহিন। রহিমাকে পিটিয়ে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে ঘাতকরা।

পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার ও তার স্বামীকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জাগো নিউজকে বলেন, নিহতের পরিবার ও স্বজনদের মৌখিক অভিযোগ রয়েছে ওই গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করেছে তার স্বামী। আমরা ঘটনা তদন্ত করে দেখছি। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামীকে আটক করা হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ওসি জাহাঙ্গীর আরও বলেন, এ ঘটনায় নিহতের মায়ের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

তানভীর হাসান তানু/এমআরআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]