নিখোঁজ নন, পারিবারিক কলহে পালিয়েছিলেন সেই অন্তঃসত্ত্বা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি লক্ষ্মীপুর
প্রকাশিত: ১১:১৫ এএম, ১৩ মে ২০২২

অডিও শুনুন

নিখোঁজ নন পারিবারিক কলহের জেরে ছেলে মেহেদি হাসানকে (৬) নিয়ে ঘর ছেড়ে পালিয়ে যান অন্তঃসত্ত্বা রোকসানা আক্তার (২৬)৷ শুক্রবার (১৩ মে) সকালে লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার চর আলী আকবর গ্রামের হাজিরহাট এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, পারিবারিক কলহের জের ধরে ১১ মে সকালে ঘুম থেকে উঠে ছেলে হাসানকে নিয়ে রোকসানা পালিয়ে যান। পরে তারা চট্টগ্রাম এক নিকটাত্মীয়ের বাসায় ওঠেন। নিখোঁজের ঘটনা জানতে গৃহবধূর বাবাবাড়ির একজনকে জিজ্ঞাসাবাদে বিষয়টি জানা যায়।

একপর্যায়ে নিজ থেকেই বৃহস্পতিবার (১২ মে) রাত ছেলেকে নিয়ে রোকসানা প্রথমে নোয়াখালী ও পরে রামগতির চারআলী আকবর গ্রামের হাজিরহাট এলাকার এক আত্মীয়ের বাড়িতে আসেন। সেখান থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। রোকসানা উপজেলার চররমিজ ইউনিয়নের চর আফজল গ্রামের দিনমজুর আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্র জানায়, মঙ্গলবার ১০ মে রাতে খাওয়া শেষে আনোয়ার ও তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী রোকসানা ছেলে সন্তান নিয়ে একসঙ্গে ঘুমিয়ে পড়েন। রাতে দু’জনের কথা কাটাকাটি হয়। সকালে ঘুম থেকে উঠে ছেলে মেহেদিসহ রোকসানাকে বিছানায় দেখা যায়নি । এতে আশপাশে খুঁজেও তাদের সন্ধান মেলেনি। বিষয়টি আনোয়ার প্রতিবেশীদের জানান।

একপর্যায়ে আশপাশের লোকজন ঘরে এসে মেঝেতে রক্ত দেখতে পান। এতে তারা তাৎক্ষণিক পুলিশে খবর দেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রথমে সাতজনকে আটক করা হয়। পরে ছয়জনকে ছেড়ে দিয়ে গৃহবধূর স্বামী আনোয়ারকে আটকে রাখা হয়।

রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরে গৃহবধূ পালিয়ে যায়। প্রায়ই তিনি এমন ঘটনা ঘটান। আনোয়ারসহ তাদের বাড়িতে পাঠানো হবে।

কাজল কায়েস/এসজে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]