সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার গৃহবধূর আত্মহত্যা, যুবক গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পিরোজপুর
প্রকাশিত: ০৯:৫৫ পিএম, ১৫ মে ২০২২
ফাইল ছবি

পিরোজপুরের নাজিরপুরে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়ে রিতা ঘরামী (২৬) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সজল মোল্লা (২৫) নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৪ মে) রাতে তাকে বানারজোড় এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে একই দিন সকালে উপজেলার দেউলবাড়ি দোবরা ইউনিয়নের সোনাপুর গ্রামের স্বামী সুনিল মণ্ডলের বাড়ির পেছনের একটি আমগাছ থেকে ওই গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতার সজল মোল্লা গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়া উপজেলার বানারজোড় গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে।

এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে তিনজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতপরিচয় আরও দুজনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই গৃহবধূ বিভিন্ন সময় কেনাকাটার জন্য গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়া যেতেন। যাওয়ার পথে কুপ্রস্তাব দিতেন উপজেলার মালিখালী ইউনিয়নের ততুবাড়ি গ্রামের আ. জলিলের ছেলে মো. জিসান (২৮)। এতে গৃহবধূ রাজি না হওয়ায় জিসানের ক্ষোভ ছিল।

শুক্রবার (১৩ মে) বিকেলে ওই নারী কোটালিপাড়া গেলে জিসান তাকে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যান। সেখানে পাঁচজন তাকে ধর্ষণ করে। পরে কোটালিপাড়ার লিংক রোড এলাকায় ফেলে রেখে যান। পরে লোকলজ্জার ভয়ে আত্মহত্যা করেন ওই গৃহবধূ।

নাজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবির জানান, এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]