মামার সামনে ভাগনের মর্মান্তিক মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০১:০১ পিএম, ১৮ মে ২০২২

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় পানিতে ডুবে মামার সামনে ভাগ্নের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (১৮ মে) সকালে ভাঙ্গা ও বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ব্যাপক তল্লাশি চালিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে।

উপজেলার নাছিরাবাদ ইউনিয়নের দুয়াইর দরগাহ বাজার এলাকায় মঙ্গলবার (১৭ মে) দুপুরে আড়িয়াল খাঁ নদীতে গোসল করতে এসে ডুবে যান সুমন হাসান (২২) নামের এক যুবক। সারাদিন স্থানীয়রা প্রবল স্রোতের মাঝে খোঁজাখুঁজি করেও উদ্ধার করতে পারেননি তাকে।

নিহতের পারিবার ও উদ্ধারকারী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে ভাগ্নে হাসানকে সঙ্গে নিয়ে তার মামা দ্বীন ইসলাম সরদার উপজেলার আড়িয়াল খাঁ নদীতে গোসল করতে যান। গোসলের এক পর্যায়ে মামার সামনে গভীর পানিতে তলিয়ে যান ভাগ্নে। এ সময় সাঁতার না জানায় মামা দ্বীন ইসলাম ভাগ্নেকে উদ্ধার করতে ব্যর্থ হন।

পরে স্থানীয়রা ভাঙ্গা ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার তৎপরতা চালায়। নদীতে প্রচণ্ড স্রোত থাকায় উদ্ধার কাজ ব্যহত হয়। বুধবার সকালে ভাঙ্গা ফায়ার সার্ভিস সাব অফিসার রমেন্দ্র নাথ চৌধুরী ও বরিশাল ডুবরি দলের লিডার নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে নদীতে প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী তল্লাশি চালিয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যাপারে নিহত সুমন হাসানের মামা দ্বীন ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, সুমন হাসান ঢাকায় মিরহাজিবাগে তার পরিবারের সঙ্গে বসবাস করতেন। চারদিন আগে আমার সঙ্গে উপজেলার দোপপাসা গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। আমি ও আমার ভাগ্নে সুমন হাসান সাঁতার না জানার কারণে আমার চোখের সামনে তার মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে ভাঙ্গা ফায়ার সার্ভিসের সাব অফিসার রমেন্দ্র নাথ চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জাগো নিউজকে বলেন, নদীতে প্রচণ্ড স্রোত থাকায় উদ্ধার কাজ ব্যহত হয়। প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

এন কে বি নয়ন/এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]