ফরিদপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত কলেজছাত্রের মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০৭:৩৫ পিএম, ২৪ মে ২০২২

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত শরিফুল মোল্যা (২২) নামের এক কলেজছাত্র হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

মঙ্গলবার (২৪ মে) ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার একটি হাসপাতালে তিনি মারা যান।

শরিফুল মোল্যা উপজেলার যুগিবরাট গ্রামের সাইদ মোল্যার ছেলে। তিনি বোয়ালমারী সরকারি ডিগ্রি কলেজের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

এলাকাবাসী ও পরিবার সূত্র জানায়, স্থানীয় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে যুগিবরাট গ্রামে দুই পক্ষের বিবাদ চলে আসছে। এরই জের ধরে এ হামলা চালানো হয়।

নিহত শরিফুলের চাচা ইসলাম মোল্যা জাগো নিউজকে জানান, শনিবার (২১ মে) সকালে শরিফুলকে নিয়ে তিনি নদীয়ার চাঁদ বাওড়ে তাদের জমিতে যাচ্ছিলেন। পথে পাঁচুড়িয়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার গিয়াস বেপারীর প্রায় অর্ধশতাধিক সমর্থক অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাদের ওপর হামলা করেন। শরিফুলকে রামদা দিয়ে কোপান তারা।

গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে তাকে আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। সেখান থেকে রোববার (২২ মে) উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়। আজ ভোরের দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এ ব্যাপারে পাঁচুড়িয়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার গিয়াস বেপারী জাগো নিউজকে বলেন, ‘হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যারা জড়িত তারা কেউ আমার দলীয় ও নিজস্ব লোক না। আমি কম বয়সে মেম্বার নির্বাচিত হয়েছি। এতে এলাকার কিছু মাতুব্বর ঈর্ষান্বিত হয়ে আমাকে একটি পক্ষে ফেলছে। আমাকে সবাই ভোট দিয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে আমি কোনোভাবেই জড়িত না।’

আলফাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ওয়াহিদুজ্জামান জাগো নিউজকে বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে আসামিরা পলাতক। যেহেতু ছেলেটি মারা গেছে আগের অভিযোগটি এখন হত্যা মামলা হিসেবে গৃহীত হবে।

এন কে বি নয়ন/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]