সেপটিক ট্যাংকে মিললো প্রেমিকার মরদেহ, প্রেমিক গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি জয়পুরহাট
প্রকাশিত: ০৩:৫৯ পিএম, ২৮ মে ২০২২

জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলায় সেপটিক ট্যাংক থেকে বিউটি বেগম (২০) নামে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের প্রেমিক উজ্জ্বল হোসেনকে (২২) গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার উজ্জ্বল ক্ষেতলাল উপজেলার শিবপুর গ্রামের শাহ আলমের ছেলে।

ক্ষেতলাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন ইয়াজদানী বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, মোবাইলে পরিচয়ের সূত্র ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই একপর্যায়ে গত ২১ এপ্রিল বিউটিকে বাড়িতে ডেকে ধর্ষণ করে উজ্জ্বল। এ ঘটনার পর বিউটি বিয়ের জন্য চাপ দিলে উজ্জ্বল তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর সেপটিক ট্যাংকে ফেলে দেয়।

ওসি বলেন, নিহত বিউটি বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার সৈয়দ দামগড় গ্রামের মৃত বেলায়েত হোসেনের মেয়ে। এর আগে বিউটি নিখোঁজের পর তার পরিবার শিবগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে। পরে বিউটির হারানো মোবাইলের আইএমইআই নম্বরের সূত্র ধরে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ শুক্রবার রাতে প্রেমিক উজ্জ্বলকে আটক করে। পরে তার দেওয়া তথ্যে শনিবার ভোরে পুলিশের উপস্থিতিতে উজ্জ্বলের বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে হত্যার এক মাস সাতদিন পর বিউটির মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় ক্ষেতলাল থানায় নিহতের ভাই বাবলু মিয়া বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেন বলেও জানান তিনি।

রাশেদুজ্জামান/এমআরআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]