হরতালে সহিংসতা: ফরিদপুরে বিএনপি-যুবদলের ৩৪ নেতাকর্মী খালাস

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০৮:৪৪ এএম, ৩০ জুন ২০২২

ফরিদপুরে হরতালে গাড়ি পোড়ানো মামলায় বেকসুর খালাস পেয়েছেন বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের ৩৪ নেতাকর্মী।

বুধবার (২৯ জুন) ফরিদপুরের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, ৩য় আদালতের বিচারক ফাহমুদা খাতুন এ মামলায় সব আসামিকে খালাস দেন।

ফরিদপুর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব এ কে কিবরিয়া স্বপন, মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এবি সিদ্দিকী মিতুল, সদস্য সচিব গোলাম মোস্তফা মিরাজ, জেলা যুবদলের তৎকালীন সভাপতি আফজাল হোসেন খান পলাশ, মহানগর যুবদলের সভাপতি বেনজির আহমেদ তাবরীজ, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম নাহিদুল ইসলাম, জেলা জাসসের সদস্য শহিদুল ইসলাম লিটন, ইমরান হোসেন লস্কর, কামাল হোসেন, মমিন, জিহাদসহ ৩৪ জনকে এ মামলার অভিযোগপত্রে (চার্জশিট) আসামি করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালের ২৭ অক্টোবর হরতালে ফরিদপুর এলজিইডির একটি গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় কোতয়ালি থানায় মামলাটি করেন তৎকালীন নির্বাহী প্রকৌশলী খন্দকার মো. আব্দুল্লাহ আবদাদ। দীর্ঘ তদন্ত শেষে কোতয়ালি থানার এসআই মনির মামলাটি তদন্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। বিচার চলাকালে পুলিশ এ মামলায় কয়েকজন আসামিকে গ্রেফতার করে। অন্যরা আদালতে হাজির হয়ে জামিন নেন।

মামলায় আসামি পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট আলী আশরাফ নান্নু ও অ্যাডভোকেট জসীমউদ্দিন মৃধা।

অ্যাডভোকেট আলী আশরাফ নান্নু জাগো নিউজকে জানান, রাষ্ট্রপক্ষ সাক্ষী ও প্রমাণ সাপেক্ষে আসামিদের বিরুদ্ধে মামলার অভিযোগ প্রমাণ করতে পারেনি। ফলে আদালত তদন্ত ও সাক্ষী-শুনানির পর বিচারকার্য শেষে সকল আসামিকে খালাস দেন।

এন কে বি নয়ন/এফএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]