বাবার মরদেহ বাড়িতে রেখে পরীক্ষায় বসলো রানা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০১:৩৬ পিএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
কেন্দ্রে বসে পরীক্ষা দিচ্ছে রানা

ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলায় বাড়িতে বাবার মরদেহ রেখে কেন্দ্রে গিয়ে পরীক্ষা দিয়েছে রানা শেখ (১৬) নামের এক শিক্ষার্থী।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় কৃষি শিক্ষা বিষয়ে পরীক্ষা দেয় সে। রানা জুঙ্গুরদি গ্রামের মজিবর শেখের (৪৬) ছেলে। সে নগরকান্দা সরকারি মহেন্দ্র নারায়ণ (এম এন) একাডেমি থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার দিনগত রাতে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান রানার বাবা মজিব শেখ। সকালে রানার কৃষি শিক্ষা পরীক্ষা ছিল। তার বাবার মৃত্যুর খবর শুনে সকালেই রানার কয়েকজন সহপাঠী তার বাড়িতে যায়। রানার অনিচ্ছা থাকা সত্ত্বেও সহপাঠীরা সান্ত্বনা দিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে নিয়ে যায়।

নগরকান্দার শহিদ মুক্তিযোদ্ধা আক্রামুন্নেসা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষা দেয় সে। রানা বাড়িতে ফিরলেই বিকেলে তার বাবা মজিবর শেখের দাফন সম্পন্ন হবে বলে জানান পরিবারের সদস্যরা।

পরীক্ষা সহ-কেন্দ্র সচিব মো. মাহাবুব আলী মিঞা জাগো নিউজকে বলেন, যথাসময়ে কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে রানা পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। বাবা মারা যাওয়ায় সে অনেকটা ভেঙে পড়েছিল। পরীক্ষা চলাকালে আমরা সার্বক্ষণিক তার খোঁজ নিয়েছি।

রানার নিকট আত্মীয় মিজানুর রহমান বলেন, ‘মজিব শেখ সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালাতেন। হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শনিবার দিনগত রাতে তিনি মারা যান। দুই ভাইয়ের মধ্যে রানা সবার ছোট। বড় ভাই হৃদয় শেখ বেকার। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তির মৃত্যুতে দিশেহারা পরিবার।

রানার স্কুল সরকারি এম এন একাডেমির প্রধান শিক্ষক বেলায়েত হোসেন মিয়া জাগো নিউজকে বলেন, সকালেই রানার বাবার মৃত্যুর খবর শুনেছি। এটি খুবই কষ্টদায়ক, কিন্তু সবাইকেই একদিন চলে যেতে হবে। আমরা সবাই রানার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি এবং তার মনমানসিকতা ভালো রাখতে ও ভালোভাবে পরীক্ষা শেষ করতে তার খোঁজ নিচ্ছি।

এন কে বি নয়ন/এসজে/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।