ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পরিষদ নির্বাচন

আওয়ামী লীগ প্রার্থীর ‘প্রচারণায়’ এমপি ফরহাদ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ১০:০৫ এএম, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২
আওয়ামী লীগ প্রার্থী আল মামুন সরকারের পাশে বসেন এমপি ফরহাদ হোসেন

জেলা পরিষদের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণায় অংশ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ আসনের সংসদ সদস্য বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রামের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জেলার নাসিরনগর জেলা পরিষদের ডাকবাংলোতে জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আল মামুন সরকারের প্রচারণা সভায় অংশ নেন তিনি। বিষয়টি নির্বাচনী আচরণবিধির পরিপন্থী বলে জানিয়েছেন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে নাসিরনগর জেলা পরিষদের ডাক বাংলোতে এক এক নির্বাচনী সভার আয়োজন হয়। এতে অংশ নিতে উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি রাফিউদ্দিন আহমেদের সই করা এক চিঠিতে উপজেলার সব ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এবং ইউপি সদস্যদের আমন্ত্রণ জানান। সেই চিঠিতে স্থানীয় সংসদ সদস্য বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম ও জেলা পরিষদ নির্বাচনে সরকার দলীয় প্রার্থী আল মামুন সরকার উপস্থিত থাকার কথা উল্লেখ করেন।

jagonews24

বিকেল ৩টায় শুরু হওয়া সভায় সংসদ সদস্য ও চেয়ারম্যান প্রার্থী ছাড়াও ইউপি চেয়ারম্যান এবং সদস্যরা অংশ নেন। এ সময় সংসদ সদস্য ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম উপস্থিত সবাইকে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীকে ভোট দিতে প্রস্তাব দেন এবং তাদের কাছ থেকে ওয়াদা আদায় করেন। যার একটি ভিডিও জাগোনিউজ২৪.কম-এর হাতে এসেছে।

তবে উপজেলা বুড়িশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত নারী সদস্য ইসমত আরা বলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর মতবিনিময় সভায় সংসদ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। তবে উনি ভোট দেওয়ার কথা সরাসরি বলেননি।

একই কথা জানালেন সভায় উপস্থিত থাকা গুনিয়াউক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জিতু মিয়া। তিনি বলেন, মতবিনিময় সভায় সংসদ সদস্য উপস্থিত থেকে সরকারের উন্নয়নের দিক তুলে ধরেছেন, তিনি ভোট চাননি।

মতবিনিময় সভার আয়োজক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাফিউদ্দিন দাবি করেন, সভাটি জনগণকে নিয়ে করা হয়েছে। আচরণবিধি ভঙ্গের বিষয়ে অভিযোগ থাকলে সংসদ সদস্যকে জিজ্ঞাসা করেন।

তবে এ বিষয়ে জানতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনের সংসদ সদস্য বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রামের মোবাইল নম্বরে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জিল্লুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, রাষ্ট্রের অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা কোনো প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে পারবেন না৷ যা নির্বাচনী আচরণবিধির পরিপন্থী। এ সময় তিনি বিষয়টি রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জানাতে বলেন।

আবুল হাসনাত মো. রাফি/এসজে/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।