সিরাজগঞ্জে মাসহ দুই সন্তানকে হত্যা, মূলহোতা গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সিরাজগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৭:৪৫ পিএম, ০৩ অক্টোবর ২০২২

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে বসতঘরে মা ও দুই সন্তানকে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার আইয়ুব আলী (২৮) উল্লাপাড়া উপজেলার মোকছেদ মোল্লার ছেলে। তিনি সম্পর্কে নিহত রওশন আরার সৎ ভাগনে।

সোমবার (৩ অক্টোবর) দুপুরে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করে পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান মণ্ডল।

তিনি বলেন, গত ২৮ সেপ্টেম্বর রাতে আইয়ুব আলী তার সৎ খালা রওশন আরার বাড়িতে যায়। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ নেওয়া তাঁত শ্রমিক আইয়ুব আলী রওশন আরার কাছে টাকা ধার চায়। পরে ধার না পেয়ে গভীর রাতে রওশন আরার ঘরে থাকা চারটি ট্রাংক খুলে টাকা চুরির চেষ্টা করে সে। পরে রওশন আরা ঘুমের মধ্যে নড়ে ওঠে। এ অবস্থায় রওশন চুরির বিষয়টি বুঝতে পেরেছে ধারণা করে তার বুকে শিল পাথর দিয়ে আঘাত করে আইয়ুব। এরপর তাকে গলাটিপে তাকে হত্যা করে। এসময় রওশন আরার পাশে ঘুমিয়ে থাকা তার তিন বছরের শিশু মাহিন কান্নাকাটি শুরু করলে তাকেও গলাটিপে হত্যা করে আইয়ুব। তখন রওশন আরার অপর সন্তান জিহাদ জেগে উঠলে তাকেও গলাটিপে হত্যা করে ঘরের দরজা লাগিয়ে পালিয়ে যায় আইয়ুব।

পুলিশ সুপার বলেন, ঘটনার তিনদিন পর ১ অক্টোবর বিকেলে নিজ ঘর থেকে সুলতান আলীর স্ত্রী রওশন আরা, তার দুই শিশু সন্তান মাহিন ও জিহাদের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওইদিন রাতেই নিহতের ভাই নুরুজ্জামান বাদী হয়ে বেলকুচি থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন।

তিনি আরও বলেন, মামলার পর জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ও বেলকুচি থানা পুলিশ চাঞ্চল্যকর ট্রিপল মার্ডার মামলার রহস্য উদঘাটনে কাজ শুরু করে। তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম রোববার (২ অক্টোবর) দিনগত রাত সোয়া ১২টার দিকে উল্লাপাড়ার নন্দিগাতি গ্রাম থেকে হত্যাকাণ্ডের মূলহোতা আইয়ুব আলীকে গ্রেফতার করে। পরে তার দেওয়া স্বীকারোক্তি ও তথ্যের ভিত্তিতে আলামত উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতার আইয়ুব আলীকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এমআরআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।