৫৯৯ টাকায় তিন সেট থ্রি-পিস

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৯ পিএম, ০৯ জানুয়ারি ২০১৮

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা থেকে মাত্র ৫৯৯ টাকা দিয়ে তিন সেট থ্রি-পিস কিনতে পারছেন ক্রেতারা। মেলার অংশ নেয়া একাধিক প্রতিষ্ঠান ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে এ অফার দিচ্ছে। পাশাপাশি বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ৯৯৯ টাকার প্যাকেজে দিচ্ছে তিন সেট থ্রি-পিস।

তিন সেট থ্রি-পিস ৫৯৯ টাকায় বিক্রি করছে আপন টেক্সটাইল। মেলার পূর্ব-দক্ষিণ প্রান্তে প্রতিষ্ঠানটির স্টল। বিক্রয়কর্মী মো. জসিম বলেন, মেলা উপলক্ষে ক্রেতাদের জন্য তিনটি প্যাকেজ দেয়া হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে ৫৯৯ টাকায় তিন সেট থ্রি-পিস, ৯৯৯ টাকায় তিন সেট থ্রি-পিস এবং এক হাজার ১০০ টাকা দিয়ে দুই সেট থ্রি-পিস কিনলে একটি ফ্রি।

প্যাকেজ তিনটির মধ্যে দুটি কিনলে একটি ফ্রি প্যাকেজ দেয়া হচ্ছে। এ অফার বেশি চলছে। তবে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হচ্ছে প্যাকেজের বাইরে এক হাজার টাকা দামের লোনের থ্রি-পিস- জানান জসিম।

তিনি আরো বলেন, ৫৯৯ টাকায় তিন সেট থ্রি-পিস দেয়া হলেও মেলার নবম দিনেও একটি প্যাকেজ বিক্রি হয়নি। ক্রেতা-দর্শনার্থীরা এসে প্যাকেজের আওতায় থাকা থ্রি-পিসগুলো দেখে চলে যাচ্ছেন। আমরা আসলে এ প্যাকেজ নিয়ে এসেছি ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে। না কিনলেও ক্রেতারা সাইন বোর্ডে লেখা দেখে স্টলে আসছেন।

বিক্রির অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে এ বিক্রয়কর্মী বলেন, আমরা দুই হাজার ৩০০ টাকা দামের থ্রি-পিসও বিক্রি করছি। গত শুক্র ও শনিবার ভালোই বিক্রি হয়েছে। বাকি দিনগুলোতে খুব একটা বিক্রি হয়নি।

৯৯৯ টাকায় তিন সেট থ্রি-পিস বিক্রি করছে এমন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে রূপ টেক্স, জান্নাত এন্টারপ্রাইজ, দেশি ফ্যাশন, আপন টেক্সটাইলসহ আরো কয়েকটি প্রতিষ্ঠান। সব প্রতিষ্ঠানের থ্রি-পিস একই ধরনের।

রূপ টেক্স’র মালিক ইসমাইল হোসেন বলেন, ৯৯৯ টাকায় তিন সেট থ্রি-পিসের যে প্যাকেজ চলছে তা মানের দিক থেকে কিছুটা খারাপ। এগুলো বাসায় ব্যবহারের জন্য। অন্য প্রতিষ্ঠানের মতো আমরাও এ প্যাকেজ নিয়ে এসেছি মূলত ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে। আমাদের স্টলে ৩৫০ টাকা থেকে দুই হাজার টাকা দামের থ্রি-পিস আছে।

স্টলটিতে বেশকিছু সময় দাঁড়িয়ে থেকে দেখা যায়, থ্রি-পিসের গায়ে যে মূল্য টানিয়ে দেয়া রয়েছে তার চেয়ে বেশ কম দামে বিক্রি হচ্ছে। গায়ে দুই হাজার ৭০০ টাকা মূল্য ঝুলিয়ে রাখা একটি থ্রি-পিস দেড় হাজার টাকায় বিক্রি করতেও দেখা যায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইসমাইল হোসেন বলেন, বিক্রির পরিস্থিতি খুবই খারাপ, তাই ছাড় দেয়া হচ্ছে। গায়ে যে মূল্য রয়েছে তার চেয়ে কম দামে সব থ্রি-পিস বিক্রি হচ্ছে। দুই হাজর টাকার ওপরে কোনো থ্রি-পিস আমরা বিক্রি করছি না।

তিন সেট থ্রি-পিস এক হাজার টাকায় বিক্রি করছে ফাহিম গিফট হাউজ। তবে স্টলটির ভেতরে ঝুলিয়ে রাখা থ্রি-পিসের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানের নাম লেখা বিল্লাল এন্টারপ্রাইজ।

স্টলটির বিক্রয় প্রতিনিধি মুক্তার হোসেন বলেন, আমাদের কাছে ৩৫০ টাকা থেকে এক হাজার ৫৫০ টাকা মূল্যের সুতির থ্রি-পিস আছে। জরজেটের থ্রি-পিস দুই হাজার ৩০০ টাকা। প্যাকেজের আওতায় তিন সেট থ্রি-পিস এক হাজার টাকা নেয়া হচ্ছে। একটি নিলে দাম পড়বে ৩৫০ টাকা।

বেচাবিক্রির সার্বিক পরিস্থিতি সম্পর্কে তিনি বলেন, খুবই খারাপ। মালিক আমাদের বেতন কীভাবে দেবে সে চিন্তায় আছি।

এমএএস/এমএআর/জেএইচ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :