পেঁয়াজের দাম কমলেও সবজির বাজার চড়া

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:২০ এএম, ১৯ জানুয়ারি ২০১৮

রাজধানীর বাজারগুলোতে সপ্তাহের ব্যবধানে নতুন দেশি পেঁয়াজের দাম কেজিতে প্রায় ১০ টাকা করে কমেছে। তবে আগের সপ্তাহের দামেই বিক্রি হচ্ছে আমদানি করা পেঁয়াজ। আর গত সপ্তাহে হঠাৎ করে বেড়ে যাওয়া সবজির দাম এখনও চড়া। সেই সঙ্গে নতুন করে দাম বেড়েছে কিছু কিছু সবজির।

শুক্রবার কারওয়ানবাজার, শান্তিনগর, রামপুরা, মালিবাগ হাজীপাড়া এবং খিলগাঁও অঞ্চলের বিভিন্ন বাজার ঘুরে এবং ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, টঙ্গীতে শুরু হওয়া বিশ্ব ইজতেমার প্রভাবে গত সপ্তাহে সবজির দাম কিছুটা বেড়ে যায়। সেই অবস্থা এখনও বিদ্যমান রয়েছে। বিশ্ব ইজতেমার কারণে সবজির গাড়ি আসতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। এছাড়া কিছু সবজি জমিতে নষ্ট হয়ে গেছে। যে কারণে সবজির দাম হঠাৎ বেড়েছে।

দাম বাড়লেও বাজারে শীতের সবজির কোনো কমতি নেই। টমেটো, শিম, লাউ, কাঁচা-পাকা মিষ্টি কুমড়া, ফুলকপি, বাঁধাকপি, ওলকপি (শালগম), পেঁয়াজের কলি, বেগুন, মুলা, লাল শাক, পালন শাক ও লাউ শাক সবকিছুই বাজারে ভরপুর।

শীতের সবজির ভরা মৌসুমে হঠাৎ দাম বাড়ায় বিরক্ত ক্রেতারা। খিলগাঁও তালতলা বাজারে সবজি কিনতে আসা মো. জামাল হোসেন বলেন, দুই সপ্তাহ ধরেই সবজির দাম চড়া। গত মাসেও যে টমেটা ৪০ টাকা কেজি কিনেছি এখন সেই টমেটা কিনতে হচ্ছে ৬০ টাকা কেজিতে। ৩০ টাকার শিমের দাম হয়েছে ৬০ টাকা। এখন শীতের সবজির ভরা মৌসুম। এখন কেনো দাম বাড়বে। এটা কিছুতেই মানা যায় না।

সবজির দাম বাড়লেও কিছুটা কমেছে পেঁয়াজের দাম। নতুন দেশি পেঁয়াজ বাজারভেদে বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকা কেজি দরে। আগের সপ্তাহে যা ছিল ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজি। আমদানি করা পেঁয়াজ আগের সপ্তাহের মতোই ৬০-৭০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে দাম বাড়ার তালিকায় সবার শীর্ষে রয়েছে শীতের অন্যতম প্রধান সবজি ফুলকপি। প্রতিপিস ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা দরে, এক সপ্তাহ আগেও ছিল ৩৫-৪০ টাকা। আর দুই সপ্তাহ আগে ছিল ২০-৩০ টাকা। পাতাকপি আগের সপ্তাহের মতোই ৩০-৩৫ টাকা পিস বিক্রি হচ্ছে।

শিমের দামও স্থিতিশীল রয়েছে। গত সপ্তাহে হঠাৎ করেই ৬০ টাকা হয়ে যাওয়া শিম এখনও ওই দামেই বিক্রি হচ্ছে। শালগম ২০ থেকে ২৫ টাকা, বেগুন ৫০ থেকে ৫৫ টাকা, মুলা ২০ থেকে ২৫ টাকা, টমেটা ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আগের সপ্তাহেও এই সবজিগুলোর দাম এমনই ছিল।

নতুন করে দাম বাড়ার তালিকায় রয়েছে লাল শাক ও পালন শাক। গত সপ্তাহে ৫ টাকা আঁটি বিক্রি হওয়া লাল ও পালন শাকের দাম বেড়ে হয়েছে ১০ টাকা।

সবজির দাম বাড়ার বিষয়ে হাজীপাড়া বৌ-বাজারের ব্যবসায়ী মো. আয়নাল হোসেন বলেন, অনেকের জমিতে সবজি নষ্ট হয়ে গেছে। আবার বিশ্ব ইজতেমার কারণে ঢাকার ভেতরে সবজির গাড়ি আসতে সমস্যা হচ্ছে। এ কারণে দাম কিছুটা বাড়তি। তবে বাজারে এখন কোনও সবজির অভাব নেই।

এমএএস/এআরএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :