নিষিদ্ধ সময়ে শেয়ার লেনদেনে ৭ জনের জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:০০ পিএম, ১৪ আগস্ট ২০১৮

কোম্পানির মূল্য সংবেদনশীল তথ্য প্রকাশের আগে এবং নিষিদ্ধ সময়ে শেয়ার ক্রয়-বিক্রয় করায় সাত ব্যক্তির ২৫ লাখ টাকা জরিমানা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

সাত ব্যক্তি ডোরিন পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড সিস্টেমসের সঙ্গে সম্পৃক্ত। এ ছাড়া দুই প্রতিষ্ঠান ও পাঁচ ব্যক্তিকে সতর্ক করারও সিদ্ধান্ত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ আগস্ট) বিএসইসির চেয়ারম্যান ড. এম. খায়রুল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

বিএসইসি জানিয়েছে, মূল্য সংবেদনশীল তথ্য প্রকাশের আগে এবং নিষিদ্ধ সময়ে শেয়ার ক্রয়-বিক্রয় করে ডোরিন পাওয়ারের সঙ্গে জড়িত ওই সাত ব্যক্তি ১৯৯৫ সালের সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (সুবিধাভোগী ব্যবসা নিষিদ্ধকরণ) বিধিমালার ৪(১)(২) বিধি ভঙ্গ করেছে।

তারা হলেন ডোরিন পাওয়ারের সাবসিডিয়ারি কোম্পানি ঢাকা নর্দান পাওয়ারের ডিজিএম ওয়াহিদুজ্জামান খান, ডোরিন পাওয়ারের পরিচালক মোস্তাফা ময়িনের স্ত্রী চৌধুরী ফারাহ নাজ সামিয়া, সিএফও আফরোজ আলম, স্বতন্ত্র পরিচালক মাহতাব বিন আহমেদ, সহকারী মহাব্যবস্থাপক ও কোম্পানি সচিব মাসুদুর রহমান ভূঁইয়া, মহাব্যবস্থাপক ইকবাল হোসেন এবং সিনিয়র মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ ফজলে এলাহী খান।

এদের মধ্যে ওয়াহিদুজ্জামান খান এবং চৌধুরী ফারাহ নাজ সামিয়াকে ১০ লাখ এবং বাকি পাঁচজনকে এক লাখ টাকা করে জরিমানার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

অপরদিকে বিধিবহির্ভূতভাবে ডোরিন পাওয়ার জেনারেশনের শেয়ার লেনদেন করায় বিশ্বজিত দাস, ইয়াকুব আলী খন্দকার, মো. ফজলুর রহমান জামালী, আনিস উদ্দীন, মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, প্রাইম ইসলামী সিকিউরিটিজ এবং ইফাদ গ্রুপকে সতর্কপত্র দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

এমএএস/এএইচ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :