বিদেশি প্যাভিলিয়নে চকবাজারের পণ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪২ পিএম, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ক্রেতা আকর্ষণে জাঁকজমকভাবে সাজানো হয়েছে বিদেশি সব প্যাভিলিয়ন। বিক্রি হচ্ছে পোশাক, প্রসাধনী, জুয়েলারি, শোপিসসহ বিভিন্ন ধরনের গৃহস্থালি পণ্য।

এর বেশিরভাগই নিম্নমানের ও দেশীয় পণ্য বলে অভিযোগ করেছেন মেলায় আসা ক্রেতা-দর্শনার্থীরা। তারা বলছেন, ঢাকার চকবাজার থেকে পণ্য এনে বিদেশি প্যাভিলিয়নগুলোতে তোলা হয়েছে। এতে বিদেশি স্টলে পণ্য কিনে আমাদের প্রতারিত হতে হচ্ছে।

মাসব্যাপী ২৪তম বাণিজ্য মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, প্রতিটি বিদেশি প্যাভিলিয়নে রয়েছে ছোট ছোট একাধিক স্টল। এর মধ্যে নারীদের সামগ্রী সব থেকে বেশি বিক্রি করছে ভারত, পাকিস্তান ও থাইল্যান্ডের প্যাভিলিয়নের ব্যবসায়ীরা। এসব প্যাভিলিয়নের নাম বিদেশি হলেও স্টল দিয়ে বসা সবাই বাংলাদেশি। এছাড়া এসব পণ্যের বেশিরভাগই রাজধানীর চকবাজার, নিউমার্কেটসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি হচ্ছে। মেলায় বিদেশি পণ্য বলে বিক্রি করছেন বেশি দামে।

পাকিস্তানি প্যাভিলিয়নে উর্দু ভাষায় ক্যাম্পেইন করে সবজি কাটার যন্ত্র বিক্রি করছেন হাবিব নামে এক ব্যক্তি। কথা বলে জানা গেছে তিনি বাংলাদেশি। মিরপুরের বিহারি ক্যাম্প থাকেন।

তিনি বলেন, ১২শ টাকার সবজি কাটার যন্ত্র মেলায় প্যাকেজ বিক্রি হচ্ছে এক হাজার টাকায়। এটি রাজধানীর চকবাজার নিউমার্কেটসহ বিভিন্ন মার্কেটে পাওয়া যায়।

mela

পাকিস্তান প্যাভিলিয়নে চাদর কিনতে আসা রুমা বেগম জানান, এখানে যেসব চাদর বিক্রি করছে তার বেশিরভাগ রাজধানীর সুপার মার্কেট ও নিউমার্কেটে রয়েছে। এখান থেকে আরও কম দামে এ চাদর বিক্রি করছে ওখানে। এখানে একটি চাদর এক দাম ১৫০০ টাকা চাচ্ছে। একই চাদর রাজধানীর সুপার মার্কেট থেকে ৮০০ টাকায় কিনেছি। তার মানে মেলায় বিদেশি পণ্য বেশি দাম নিচ্ছে।

এদিকে থাইল্যান্ডের পণ্য বলে জুয়েলারি ও প্রসাধনী পণ্য বিক্রি করছে অরজিনাল হংকং ফ্যাশন জুয়েলারি নামের একটি প্রতিষ্ঠান। স্টলে বেশ কয়েকজন বিদেশিকে দেখা যায় পণ্য বিক্রি করছেন। প্রতিষ্ঠানটির এক বিক্রয়কর্মী জানান, তাদের পণ্য থাইল্যান্ড থেকে আমদানি করা। এখানে যেসব বিদেশি দেখা যাচ্ছে, তারা এসব পণ্য এনেছেন। বিদেশি পণ্য বলে বিক্রিও ভালো হচ্ছে।

এ সময় মোহাম্মদপুর থেকে আসা ফারজানা জাবা নামের এক দর্শনার্থী বলেন, এখানে যেসব জুয়েলারি ও প্রসাধনী বিক্রি করছে তার বেশিরভাগই রাজধানীর নিউমার্কেট, গাউসিয়ায় অনেক কম দামে পাওয়া যায়। তাহলে এখান থেকে কেন কিনব?

mela

ক্ষোভ প্রকাশ করে এ দর্শনার্থী বলেন, ‘আমার যতটুকু ধারণা, চকবাজার থেকে পণ্য এনে বিদেশি বলে বিক্রি করছে তারা।'

যারা জানে না তারা বিদেশি পণ্য কিনে ঠকছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাণিজ্য মেলার সদস্য সচিব রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) কর্মকর্তা আব্দুর রউফ বলেন, বিদেশি প্যাভিলিয়নগুলো অন্য দেশের পণ্য রাখবে কি না এটা তাদের নিজস্ব ব্যাপার। তবে কেউ যদি পণ্য বিক্রয়ের নামে প্রতারণা করে তাহলে নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

mela

এদিকে বাণিজ্য মেলায় নকল পণ্য বিক্রি, ওজনে কম দেয়াসহ বিভিন্ন প্রতারণার অভিযোগে বেশকিছু বিদেশি স্টলকে জরিমানা করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জাতীয় ভোক্তা অধিকার অধিদফতরের ঢাকা জেলা অফিসের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মণ্ডল জাগো নিউজকে বলেন, ইরান, ভারতসহ এ পর্যন্ত একাধিক দেশের বিদেশি স্টলকে জরিমানা করা হয়েছে।

এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে একটি দেখিয়ে অন্য একটি পণ্য বিক্রি, দাম বেশি রাখা, নকল পণ্য বিক্রি ও ওজনে কম দেয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। আমরা তাদের প্রাথমিকভাবে কম জরিমানা করে সতর্ক করেছি। পরবর্তীতে এসব অভিযোগ পেলে বেশি জরিমানা করা হবে।

তিনি বলেন, মেলায় ভোক্তার স্বার্থে ভেজাল, নকল ও প্রতারণা রোধে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। এছাড়া কারো সেবা বা পণ্য ক্রয়ে কেউ প্রতারিত হলে মেলায় ভোক্তা অধিদফতরের অস্থায়ী কার্যালয়ে অভিযোগ করতে পারছেন।

এসআই/জেডএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]