আবাসন মেলায় বিপ্রপার্টির বিনামূল্যে আর্থিক ও আইনি পরামর্শ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:০৫ পিএম, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) চলমান আবাসন মেলায় বিনামূল্যে আর্থিক ও আইনি পরামর্শ দিচ্ছে রিয়েল এস্টেট খাতের অনলাইন মার্কেটপ্লেস বিপ্রপার্টি ডটকম।

‘রিহ্যাব ফেয়ার-২০১৯’ শীর্ষক পাঁচ দিনব্যাপী এ আবাসন মেলার আয়োজন করেছে রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশান অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব)। মেলার শেষ দিন ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিনামূল্যের এই পরামর্শ সেবা দেবে প্রতিষ্ঠানটি।

মেলা প্রাঙ্গণে বিপ্রপার্টি ডটকমের স্টলে দায়িত্ব পালন করা কর্মকর্তারা জানান, মেলায় ক্রেতারা চাইলে বিপ্রপার্টি ডটকম-এর আবাসন উপদেষ্টাদের (প্রপার্টি এক্সপার্ট) সঙ্গে যেকোনো প্রপার্টির আইনি জটিলতা, কোনো প্রপপার্টির দলিলের বৈধ্যতাসহ গৃহঋণের বিষয়ে আলোচনা করতে পারবেন এবং এ সংক্রান্ত সকল প্রশ্নের উত্তর জানতে পারেন।

পাশাপাশি বিপ্রপার্টি ডটকম’র উপদেষ্টাদের সহায়তায় ক্রেতারা পছন্দের প্রপার্টিতে স্ব-শরীরে গিয়ে দেখার সুযোগ পাবেন এবং চাইলে মেলা থেকে তাদের পছন্দের প্রপার্টি বুকিং অথবা ক্রয় করতে পারবেন।

তারা বলেন, বিপ্রপার্টি ডটকম ঢাকা ও বাংলাদেশের অন্যান্য শহরগুলোতে ১ লাখ ১৯ হাজারের বেশি প্রপার্টিতে জরিপ এবং যাচাই-বাছাই কার্যক্রম পরিচালনা করেছে। বর্তমানে এই মার্কেটপ্লেসে ক্রয় ও বিক্রয়ের জন্য প্রায় ২৫ হাজার প্রপার্টি তালিকাভুক্ত আছে। সম্পূর্ণ প্রস্তুত ও সুসজ্জিত প্রপার্টিগুলো রিহ্যাব মেলায় ১২টি স্টলের মাধ্যমে দর্শনার্থী ও ক্রেতাদের জন্য প্রদর্শন করা হচ্ছে।

bproparty-2

কর্মকর্তারা জানান, বাংলাদেশে রিয়েল এস্টেট খাতের ক্রেতা ও বিক্রেতাদের মাঝে আস্থা তৈরি করাই বিপ্রপার্টির প্রধান লক্ষ্য। বিপ্রপার্টি শুধু প্রপার্টি ক্রয়-বিক্রয়ই করে না, বরং প্রপার্টি ক্রয়-বিক্রয়ের সিদ্ধান্তের সঙ্গে সম্পর্কিত সকল আইনি, আর্থিক ও অন্যান্য সল্যুশন সরবরাহ করে থাকে।

বিপ্রপার্টি ডটকম’র প্রধান নির্বাহী (সিইও) মার্ক নসওয়ার্দি বলেন, ‘প্রপার্টি কেনার সময় ক্রেতাদের আর্থিক ও আইনি সমস্যা রিয়েল এস্টেট খাতের অন্যতম প্রধান সমস্যা। আমরা ঠিক এসব সমস্যা সমাধান করি, ফলে ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়ই যথাযথ সল্যূশন পেতে পারেন। আমাদের সেবাসমূহ শুধু আমাদের গ্রাহকদের জন্যই নয়, বরং অন্যান্য মানুষও এসব সেবা নিতে পারেন।

এমএএস/এমবিআর/এমকেএইচ