আবাসন মেলায় ক্রেতা-বিক্রেতাদের ঠিকানা বিনিময়

ফজলুল হক শাওন
ফজলুল হক শাওন ফজলুল হক শাওন , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:৩৫ পিএম, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের আঙ্গিনায় মেলা বসেছে রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব)। মেলার তৃতীয় দিন শুক্রবার ছুটির দিন হওয়ায় বিপুল মানুষের ভিড় ছিল।

হাজার হাজার মানুষ মেলায় প্রবেশ করছে আবার বের হচ্ছে। কিন্তু বেচাকেনা নেই। এ মেলায় গিয়ে দেখা গেছে, ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে চলছে ঠিকানা বিনিময়। অ্যাড্রেস ক্লিপে ক্রেতা ঠিকানা লিখে দিচ্ছেন, আর কোম্পানির ঠিকানা নিয়ে যাচ্ছেন। পরে ভেবে চিন্তে, বুঝে শুনে, সাইট ভিজিট করে ফ্ল্যাট বা প্লট কিনবেন।

প্রিয় প্রাঙ্গণ কোম্পানির অ্যাসিসটেন্ট ম্যানেজার মো. আমজাদ হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘রিহ্যাব মেলা কোনো বেচাকেনার মেলা নয়। এ মেলা ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে বোঝাপড়ার মেলা। গ্রাহককে যতই বুঝাই কোনো গ্রাহকই পণ্য না দেখে কিনবে না। আর তা ছাড়া ঘরবাড়ি, জমিজমা ও ফ্ল্যাট না দেখে কেউ কিনবে না। সে কারণে মেলায় যে সব ক্রেতা আসেন কোম্পানির লোকজন তাদের প্রকল্প সম্পর্কে বোঝায়।’

rihab

তিনি বলেন, ‘কোন প্রকল্পে কী কী সুবিধা আছে তার বিস্তারিত বিবরণ দিচ্ছেন মেলায় বসা স্টলের কর্মকর্তারা । আর ক্রেতারা সাধারণতো নিজের ঠিকানা ফোন নম্বর লিখে দিয়ে কোম্পানির প্রসপ্রেকটাস নিয়ে চলে যাচ্ছেন।’

ক্রেতা হিসেবে মেলায় গেছেন রাজধানীর গ্রিন রোডের বাসিন্দা রীনা জেসমিন। সরকারি চাকরি থেকে এবারই তিনি অবসর নিয়েছেন। সাধ্যের মধ্যে একটি ফ্ল্যাট কেনার জন্য ৫-৬ মাস ধরে বিভিন্ন রিয়েল স্টেট কোম্পানির কাছে যাচ্ছেন। কিন্তু দরদামে মিলছে না। মেলায় গেছেন যদি কোনো কোম্পানি মেলা উপলক্ষে ছাড় দিয়ে থাকে সে জন্য।

জাগো নিউজকে তিনি বলেন, ‘কয়েকটি কোম্পানি কিছু ছাড় দিচ্ছেন কিন্ত তাদের প্রকল্প মিরপুর, কল্যাণপুর, শেখের টেক, উত্তরখান এলাকায়। ঢাকার প্রায় শেষ প্রান্তে যে সব প্রকল্প আছে সেখানে ফ্ল্যাটের দাম কিছুটা কম চাচ্ছে। তা ছাড়া ঢাকার মধ্যে যে সব প্রকল্প আছে সেখানে দাম অনেক বেশি।’

বিভিন্ন ডেভেলপার কোম্পানির কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, ঢাকার অভিজাত এলাকায় ফ্ল্যাটের দাম কোটি টাকার উপরে। তবে মধ্যবিত্তদের জন্য আছে মিরপুর, খিলগাঁও, ক্যাণপুর, উত্তরখান ও গোপীবাগের মতো এলাকায়। এসব এলাকায় ৯০০ থেকে ১০০০ বর্গফুটের ফ্ল্যাট ৪৫ লাখ থেকে ৫০ লাখের মধ্যে কেনাবেচা হয়।

নাভানা রিয়েল স্টেটের অ্যাসিসটেন্ট ম্যানেজার মো. হামিদুর রহমান জাগো নিউজকে জানান, ঢাকার ভেতরেই ছোট আকারের ফ্ল্যাটের প্রতিই আগ্রহ বেশি। যেহেতু সাধ্যের মধ্যে পরিকল্পনা তাই অনেকেই খুঁজছেন মিরপুর, খিলগাঁও ও বাসাবোর দিকেই। তবে অভিজাত এলাকার চাহিদা যে কম তাও নয়।

rihab

তিনি বলেন, ‘ক্রেতারা মেলায় এসে আমাদের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করছেন। তারা যে ঠিকানা দিচ্ছেন সেটা ধরেই পরে আমাদের কোম্পানির কর্মকর্তারা যোগাযোগ করবেন। ক্রেতারা সাইট ভিজিট করবেন। পছন্দ হলে তারপর দরদাম এবং ক্রয় কার্যক্রম।’

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের সামনের চত্বরে পাঁচ দিনব্যাপী মেলা শুরু হয়েছে গত বুধবার। আবাসন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন রিহ্যাব মেলাটির আয়োজক। মেলার উদ্বোধন করেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম। এ মেলায় আছে ২০২টি স্টল। এর মধ্যে ১৬৮টি আবাসনের, ২০টি নির্মাণ সামগ্রীর ও ১৪টি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের।

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলছে মেলা। মেলার শেষদিন রোববার। মেলায় প্রবেশের জন্য দুই ধরনের টিকিটের ব্যবস্থা রয়েছে। একবার প্রবেশের জন্য ৫০ টাকার টিকিটের পাশাপাশি ৫ বার প্রবেশের জন্য মাল্টিপল টিকিটের মূল্য ১০০ টাকা। প্রবেশ টিকিটের অর্থ দুস্থদের কল্যাণে ব্যয় হবে।

এফএইচএস/এনডিএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :