ক্রেতা সঙ্কটে ১০ মিউচ্যুয়াল ফান্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৫৩ এএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

আকর্ষণীয় লভ্যাংশ ঘোষণার পরও রেকর্ড ডেটের পর রেস ম্যানেজমেন্ট পরিচালিত ১০টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ক্রেতা সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

এ ১০ মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে রয়েছে- ফার্স্ট জনতা ব্যাংক মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ইবিএল ফার্স্ট, ইবিএল এনআরবি, এবি ব্যাংক ফার্স্ট, পপুলার লাইফ ফার্স্ট, ট্রাস্ট ব্যাংক ফার্স্ট, পিএইচপি ফার্স্ট, আইএফআইসি ফার্স্ট, এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট এবং ফার্স্ট বাংলাদেশ ফিক্সড ফান্ড।

সবগুলো ফান্ডের লভ্যাংশ পাওয়ার যোগ্য বিনিয়োগকারী নির্ধারণে রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয় ১৬ সেপ্টেম্বর। রেকর্ড ডেটের পর রোববারই (১৯ সেপ্টেম্বর) ফান্ডগুলোর প্রথম লেনদেন শুরু হয়েছে।

এদিন লেনদেনের শুরুতেই ফান্ডগুলোর দাম কমতে থাকে। দেখতে দেখতে দিনের দাম কমার সর্বোচ্চ সীমায় পৌঁছে যায় সবগুলো ফান্ড। এরপরও ৮টি ফান্ডের ক্রয় আদেশের ঘর খালি পড়ে রয়েছে।

ফার্স্ট জনতা ব্যাংক-
এ ফান্ড ইউনিট হোল্ডারদের ১৩ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। রেকর্ড ডেটের আগে ফান্ডটির দাম ছিল ৯ টাকা ৭০ পয়সা। এখন তা কমে ৮ টাকা ৮০ পয়সায় নেমে গেছে।

ইবিএল ফার্স্ট-
এই ফান্ড ইউনিট হোল্ডারদের ১৩ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। রেকর্ড ডেটের আগে ফান্ডটির দাম ছিল ৯ টাকা ৯০ পয়সা। এখন তা কমে ৯ টাকায় নেমে গেছে।

ইবিএল এনআরবি-
এ ফান্ড ইউনিটহোল্ডারদের ৬ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। রেকর্ড ডেটের আগে ফান্ডটির দাম ছিল ৭ টাকা ২০ পয়সা। এখন তা কমে ৬ টাকা ৮০ পয়সায় নেমে গেছে।

এবি ব্যাংক ফার্স্ট-
এ ফান্ড ইউনিট হোল্ডারদের ৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। রেকর্ড ডেটের আগে ফান্ডটির দাম ছিল ৭ টাকা ১০ পয়সা। এখন তা কমে ৬ টাকা ৪০ পয়সায় নেমে গেছে।

পপুলার লাইফ ফার্স্ট-
এ ফান্ড ইউনিট হোল্ডারদের সাড়ে ৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। রেকর্ড ডেটের আগে ফান্ডটির দাম ছিল ৭ টাকা। এখন তা কমে ৬ টাকা ৩০ পয়সায় নেমে গেছে।

ট্রাস্ট ব্যাংক ফার্স্ট-
এ ফান্ড ইউনিট হোল্ডারদের ৯ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। রেকর্ড ডেটের আগে ফান্ডটির দাম ছিল ৭ টাকা ৪০ পয়সা। এখন তা কমে ৬ টাকা ৭০ পয়সায় নেমে গেছে।

পিএইচপি ফার্স্ট-
এ ফান্ড ইউনিট হোল্ডারদের সাড়ে ৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। রেকর্ড ডেটের আগে ফান্ডটির দাম ছিল ৭ টাকা ২০ পয়সা। এখন তা কমে ৬ টাকা ৫০ পয়সায় নেমে গেছে।

আইএফআইসি ফার্স্ট-
এ ফান্ড ইউনিট হোল্ডারদের সাড়ে ৭ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। রেকর্ড ডেটের আগে ফান্ডটির দাম ছিল ৭ টাকা। এখন তা কমে ৬ টাকা ৪০ পয়সায় নেমে গেছে।

এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট-
এ ফান্ড ইউনিট হোল্ডারদের সাড়ে ৭ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। রেকর্ড ডেটের আগে ফান্ডটির দাম ছিল ৭ টাকা ৯০ পয়সা। এখন তা কমে ৭ টাকা ২০ পয়সায় নেমে গেছে।

ফার্স্ট বাংলাদেশ ফিক্সড ফান্ড-
এ ফান্ড ইউনিট হোল্ডারদের ৪ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। রেকর্ড ডেটের আগে ফান্ডটির দাম ছিল ৬ টাকা ২০ পয়সা। এখন তা কমে ৫ টাকা ৮০ পয়সায় নেমে গেছে।

এমএএস/এমকেআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]